কুটুম সেজে চুরি, অর্থ ও গহনা নিয়ে পালানোর সময় ধরা পড়লো চোর

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী বাজারে এক ব্যাবসায়ীর বাসায় ঢুকে নগদ অর্থ ও গহনা নিয়ে পালানোর সময় ধরা পড়েছে আলামিন নামে এক চোর। আটককৃত চোর চুয়াডাঙ্গার দামুরহুদা উপজেলার রামনগর গ্রামের ইলিয়াস আলীর ছেলে।

বৃহষ্পতিবার দুপুরে হলিধানী বাজারের পাশে আখসেন্টার সংলগ্ন এলাকায় ফল ব্যবসায়ী আজিজুল মিয়ার বাসায় এ চুরির ঘটনা ঘটে।

ফল ব্যবসায়ী আজিজুল জানান, দুপুরে চোর আল আমিন বাসার বাইরে মটরসাইকেল রেখে ভিতরে ঢুকে পুরুষ মানুষ বাড়ি আছে কিনা তা ডাকাডাকি করে নিশ্চত হয়। পুরুষ লোক বাসায় না থাকায় সে আজিজুলের স্ত্রীকে বলে আমি চাচাকে দাওয়াত দিতে এসেছি। কুটুম ভেবে গৃহকর্তী রুমের মধ্যে বসিয়ে নাস্তা দেই। নাস্তা খেতে খেতে বলে চাচি আমার মটরসাইকেলে চাবি ভুলে গাড়িতেই রেখে আসছি একটু নিয়ে আসেন। গৃহকর্তী চাবি আনতে গেলে চোর ড্রয়ার ও আলমারির তালা খুলে নগদ কুড়ি হাজার টাকা ও গহনা নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে।

এ সময় ওই মহিলার চিৎকারে বাজারের লোকজন ছুটে এসে চোর আলামিনকে ধরে উত্তম মাধ্যম দেয়। খবর পেয়ে কাতলামারি ক্যাম্পের পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে কাতলামারি পুলিশ ক্যাম্পের এ এস আই মোল্লা এনামুল জানান,আটককৃত চোর দাওয়াত দেওয়ার নামে বাসায় ঢুকে চুরি করে পালানোর সময় লোকজন তাকে আটক করেছে। আমরা তাকে জেল হাজতে প্রেরনের জন্য সদর থানায় হস্তান্তর করেছি।

মোঃ জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি