চীন থেকে ফেরা ৮ জনকে নেয়া হয়েছে কুর্মিটোলা হাসপাতালে

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে দেশে ফিরেছেন ৩১৪ বাংলাদেশি। ৩১৬ জন আসার কথা থাকলেও জ্বর থাকায় দুইজনকে আনা হয়নি। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটটি ঢাকায় পৌঁছায়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার পর হ্যান্ড স্ক্যানারের সাহায্যে ফ্লাইটের ভেতরে যাত্রীদের জ্বর আছে কি না, তা এখন পরীক্ষা করে দেখা হয়। এরই মধ্যে আট জনের শরীরের তাপমাত্রা ১০০ ডিগ্রির বেশি থাকায় তাদেরকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

ঢাকা বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ সাংবাদিকদের বিষয়টির নিশ্চিত করেছেন।

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীন থেকে শনিবার সকাল নয়টার উহানের তিয়ানহি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশিদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজ ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়।

উহানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের শুক্রবার দুপুরে থেকেই বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। চীনের স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ৯টায় তিয়ানহি বিমানবন্দরে পৌঁছায় ওই উড়োজাহাজ। এরপর চলে যাত্রীদের পরীক্ষা ও আনুষ্ঠানিকতার পর্ব।

এরা আগে শুক্রবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, চীন থেকে আসা বাংলাদেশিদের আশকোনা হজ ক্যাম্পে রাখা হবে। এরই মধ্যে হজ ক্যাম্পে আইসোলেশন ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে।