শুনানি না হওয়া পর্যন্ত প্রথম আলো সম্পাদকসহ ৬ জনকে গ্রেফতার না করার নির্দেশ

স্কুলছাত্র নাঈমুল আবরার রাহাতের মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলায় প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ছয়জনের জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হবে আগামীকাল (সোমবার)। একই সঙ্গে জামিন শুনানি না হওয়া পর্যন্ত তাদের হয়রানি ও গ্রেফতার না করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আবেদনের প্রাথমিক শুনানি করে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চে রোববার এ আদেশ দেন।

আদালতে সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ছয়জনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম। আবেদনকারী অন্যরা হলেন-পত্রিকাটির সহযোগী সম্পাদক আনিসুল হক, কিশোর আলোর জ্যেষ্ঠ সহ-সম্পাদক মহিতুল আলম, প্রথম আলোর হেড অব ইভেন্ট অ্যান্ড অ্যাকটিভেশন কবির বকুল, নির্বাহী শাহ পরাণ তুষার ও নির্বাহী শুভাশীষ প্রামাণিক।

আবরারের অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে করা মামলায় গত বৃহস্পতিবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মো. কায়সারুল ইসলাম, মতিউর রহমানসহ ১০ জনের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

মোহাম্মদপুরে ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠানে গত ১ নভেম্বর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় নবম শ্রেণির ছাত্র আবরার রাহাত। মহাখালীর ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। ওই অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিল প্রথম আলোর কিশোর সাময়িকী কিশোর আলো।

প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান কিশোর আলোরও প্রকাশক। আর কিশোর আলোর সম্পাদক হলেন আনিসুল হক। আবরারের বাবা মো. মুজিবুর রহমান গত ৬ নভেম্বর প্রথম আলো সম্পাদকসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনের বিরুদ্ধে আদালতে এ মামলা করেন। সেখানে দণ্ডবিধির ৩০৪ (ক) ধারায় অবহেলার কারণে মৃত্যুর অভিযোগ আনা হয়।