বৃহস্পতিবার বেতনভুক্ত ৩০ হাজার রাজাকারের নামের তালিকা উপস্থাপনঃ শাহরিয়ার কবির

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি, লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির বলেছেন, ‘বেতনভুক্ত ৩০ হাজার রাজাকারের নামের তালিকা অবসরপ্রাপ্ত মেজর শামসুল আরেফিনের নিকট সংরক্ষিত রয়েছে। যা বৃহস্পতিবার ঢাকায় ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হবে।’

বুধবার লালমনিরহাটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ সব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘রাজাকারদের তালিকায় মুক্তিযোদ্ধাদের নাম অন্তর্ভুক্তিতে বিতর্ক ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তালিকা প্রণয়নে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের গবেষকদের সংযুক্ত না করে তালিকা প্রকাশ করায় এ সমস্যা দেখা দিয়েছে।’

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য রাজাকারদের তালিকা প্রণয়ন করতে হবে উল্লেখ করে শাহরিয়ার কবির জানান, বৃহস্পতিবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে রাজাকারের তালিকায় মুক্তিযোদ্ধাদের নাম অন্তর্ভুক্তি হওয়ায় দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে একটি তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। পাশাপাশি অবসরপ্রাপ্ত মেজর শামসুল আরেফিনের নিকট সংরক্ষিত ৩০ হাজার বেতনভুক্ত রাজাকারের তালিকা উপস্থাপন করা হবে ওই সংবাদ সম্মেলনে।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে রাজাকারদের নাম সংবলিত স্থাপনা সরিয়ে ফেলা হবে বলে আশা করেন তিনি।

বুধবার একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি লালমনিরহাট জেলা শাখার আয়োজনে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ওভার মতিয়ার স্মৃতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি লালমনিরহাট জেলা শাখার সভাপতি মঈনুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিচারপতি শামসুদ্দিন মানিক (উপদেষ্টা একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি)। প্রধান আলোচক ছিলেন, শাহরিয়ার কবির।

এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লালমনিরহাট জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ময়জুল ইসলামসহ অন্য নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভায় সুশীল সমাজাদের প্রতিনিধি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের লোকজন ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।