সেনাবাহিনী ও র‍্যাবের যৌথ অভিযানে বিপুল পরিমান আরপিজি ও বোমা উদ্ধার

হবিগঞ্জের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের একটি পাহাড় থেকে ১৩টি আরপিজি গোলা (রকেট লঞ্চারের গোলা) কিছু বিস্ফোরক সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে। সেনাবাহিনী ও র‍্যাবের যৌথ উদ্যোগে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। তবে এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।

শনিবার (২৩ নভেম্বর) বেলা ১২টার দিকে এসব অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব -৭ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ মাহাবুবুল আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ২১ নভেম্বর রাতে আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য আসে সাতছড়ির একটি পাহাড়ের ভেতরে আগ্নেয়াস্ত্র লুকিয়ে রাখা হয়েছে। এরপর আমরা জায়গাটি চিহ্নিত করতে কাজ করি। এতে সেনাবাহিনীর ৪ পদাতিক ডিভিশন আমাদের সহযোগিতা করেছে। শনিবার আমরা স্ক্যান করে জায়গা নির্দিষ্ট করে পাহাড়ের মাটি খুঁড়ে ১৩টি আরপিজি উদ্ধার করেছি। এগুলো কয়েক মাস আগে এখানে রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এসব গোলা ১০-১৫ বছর তাজা থাকে। এগুলো ধ্বংস করা হবে। তবে কারা কী উদ্দেশ্যে এসব উদ্যানের ভেতরে রেখেছে তা বিস্তারিত জানা সম্ভব হয়নি।

এদিকে র‌্যাবের পক্ষ থেকে এক বার্তায় জানানো হয়েছে, অভিযানে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১৩ রাউন্ড আরপিজি গোলা এবং কিছু বিস্ফোরক সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত গোলা ও বিস্ফোরক দ্রব্যসমূহ বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দল কর্তৃক ধ্বংস করা হচ্ছে।