জীবিত অববস্থায় দেশে ফিরতে চায় মালয়েশিয়ায় কারাবন্দী ইয়ার!

মালয়েশিয়ায় ইমিগ্রেশন পুলিশের অভিযানে আটক ইয়ার হোসেন নামে(৩৪) এক বাংলাদেশী যুবকের প্রান এখন সঙ্কটাবস্থায়। আজ থেকে ৪ মাস আগে অবৈধ অবস্থায় পুলিশের হাতে আটক হয়ে অমানবিক নির্যাতনের স্বীকার হয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় দেশটির সারোয়াক প্রদেশের জেলে বন্দী আছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে পরিবারের আকুল আবেদন তাকে যেন জীবিত দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা। এদিকে তার গ্রামে ইয়ার হোসেনের মা ছেলের শোকে বার বার জ্ঞান হারাচ্ছে।

কারা নির্যাতিত যুবক ইয়ার হোসেন ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার খলাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত হাসান মিয়ার ছেলে।

ইয়ার হোসেনের বড় মোঃ কামাল হোসেন ফোনে জানান, তার ভাই চার মাস আগে আটক হওয়ার পর জেলের ভিতর অমানবিক নির্যাতনের স্বীকার হয়ে সহ্য করতে না পেরে কিছুদিন আগে জেল থেকে পালিয়ে যায়, গতকাল শনিবার পুলিশ তাকে আটক করে নির্যাতন করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে সে এখন বেঁচে আছে কি না মরে গেছে জানি, এই কথা বলে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন বাংলাদেশ হাইকমিশন সহ সকল প্রবাসী ও মিডিয়ার সহযোগিতা চাই তাকে জীবিত দেশে ফেরত পাঠান।

এদিকে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন কে ইয়ার হোসেনের ব্যাপারে তথ্য দিলে দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) জনাব হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডল তা গ্রহন করেন, এবং তিনি বলেন আজ রবিবার দূতাবাসের সব কার্যক্রম বন্ধ তবুও একজন মুমুর্ষ এয়ার হোসেনের জন্যে আমাদের সাব্বিক চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। পরে তিনি বিস্তারিত যোগাযোগ করে বলেন, মালয়েশিয়া পুলিশ জানিয়েছে ইয়ার হোসেন Immigration Department Detention Centre থেকে পালিয়ে যায় এবং ইমিগ্রেশন তাকে আবার গ্রেফতার করে গতকাল। হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়েছে।

সে এখন মালয়েশিয়ার সারুয়াক প্রদেশের মিরি পুলিশের অধীনে তদন্ত হেফাজতে আছে আগামী ২১ নভেম্বর তারিখ পর্যন্ত৷ সেখানে পুলিশের কাছে এই ডকুমেন্টস হিসাবে আটক আছে। (Name: Hossain Hasen Ali. No: Passport: BC0878593. DOB: 26.02.1980. Age: 39 years old).

হেদায়েদুল ইসলাম মন্ডল আরো বলেন, যদিও পুনরায় অপরাধ সংঘটিত হয়েছে তথাপি তাকে দেশে ফেরত পাঠাতে কাজ করছি।