‘বুলবুল’ এর দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে আশ্রয়কেন্দ্রে জন্ম নিয়েছে ‘বুলবুলি’

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সগারদ্বীপ এলাকা দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করার পর তাণ্ডবলীলা চালাতে চালাতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এসেছে বাংলাদেশে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ রবিবার (১০ নভেম্বর) সাতক্ষীরা অতিক্রম করে মোংলা-বাগেরহাটের দিকে অগ্রসর হয়েছে।

উপকূলের দিকে ধেয়ে আসা প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে আশ্রয়কেন্দ্রে জন্ম নিয়েছে এক কন্যা শিশু। শনিবার (৯ নভেম্বর) দিনগত মধ্যরাতে বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার মিঠাখালীর এটিসি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রে শিশুটির জন্ম হয়। পরে ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে মিলিয়ে শিশুটির নাম রাখা হয় ‘বুলবুলি’।

শিশুটির মায়ের নাম হনুফা বেগম, আর বাবা বায়েজিদ শিকদার। শিশু কন্যা ও মা দু’জনই সুস্থ আছেন বলে জানান মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রাহাত মান্নান।

তিনি বলেন, ‘গর্ভধারিণী হনুফা বেগমের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন ছিল। তার জন্য আগেই মোংলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস থেকে ধাত্রী এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসক পাঠানো হয়েছিল। মধ্যরাতে নবজাতক কন্যার জন্মের পরই ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র নামানুসারে নাম রাখা হয় বুলবুলি। শিশু কন্যার বাবা বায়েজিদ শিকদার তার নবজাতক কন্যার নাম রেখেছেন। নবজাতক কন্যা এবং তার মাতা হনুফা বেগম সুস্থ আছেন। তাদের যত্ন নেওয়ার জন্য চিকিৎসক নিয়োজিত আছেন।’

রাহাত মান্নান আরও বলেন, ‘দুর্গম এলাকা এবং বৈরী আবহাওয়ায় চিকিৎসক পৌঁছাতে দেরি হয়েছে। প্রশাসকের পক্ষ থেকে প্রসুতিকে ২০ হাজার টাকা প্রদান করা হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।’