ধানমন্ডিতে জোড়া খুন রহস্য, গ্রেফতার সেই সন্দেহভাজন নতুন গৃহকর্মী

রাজধানীর ধানমন্ডির নজরুল ইনস্টিটিউটের পাশে এক ভবনের ৫ম তলা থেকে গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগম ও গৃহকর্মী দিতি হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি গৃহকর্মী সুরভীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে শেরে বাংলা নগরের একটি হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে ধানমন্ডি থানায় হস্তান্তর করা হয় বলে জানিয়েছে শেরে বাংলা নগর থানার পুলিশ। 

পুলিশের ধানমন্ডি জোনের এডিসি আবদুল্লাহিল কাফী বলেন, ওই ভবনের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গৃহকর্মী সুরভীর প্রবেশ ও বাইরে যাওয়ার মাঝে আর কেউ ওই বাসায় প্রবেশ করেনি। সুরভীকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এখন এ হত্যা রহস্যের কিনারা করা যাবে বলে দাবি পুলিশের এই কর্মকর্তার। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, শুক্রবার দুপুর ৩টার পর বাসায় প্রবেশ করেন ওই নারী। টানা তিন ঘণ্টা পর সন্ধ্যা ৬টায় বেরিয়ে আসে সে।

গত ১ নভেম্বর বিকালে রাজধানীর ধানমন্ডির ২৮ নম্বর সড়কের ২১ নম্বর বাসায় খুন হন গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগম এবং তার গৃহকর্মী দিতি। ঘটনার দিন বিকালে ওই বাসায় কাজ করার জন্য গৃহকর্মী সুরভীকে নিয়ে এসেছিলেন আফরোজা বেগমের মেয়ে জামাতা মনির উদ্দিন তারিমের ব্যক্তিগত সহকারী বাচ্চু।