বাংলাদেশে ৩৬০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করতে চায় সৌদি 

বাংলাদেশে তিন হাজার ৬০০ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতার একটি গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করতে চায় সৌদি আরবভিত্তিক কোম্পানি আকওয়া পাওয়ার। এজন্য স্থান নির্বাচনসহ প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে বৃহস্পতিবার ঢাকায় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবির) সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারকে (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে সৌদি কোম্পানিটি।

রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে অ্যাকয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ আবু নাইয়ান ও পিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

অন্যদের মধ্যে এ সময় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ও বিদ্যুৎ সচিব আহমদ কায়কাউস উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সঙ্গে সৌদি আরবের আকওয়া পাওয়ারের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

প্রাকৃতিক গ্যাস বা রূপান্তরিত তরল প্রাকৃতিক গ্যাসভিত্তিক (আর-এলএনজি) কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির জন্য আকওয়া পাওয়ার আড়াইশ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে বলে রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা বাসস জানিয়েছে।

চুক্তি স্বাক্ষরের পর আকওয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান বলেন, “৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ ও পরিচালনার জন্য এ সমঝোতা স্বাক্ষর হয়েছে। এর জন্য আমরা আড়াই বিলিয়ন ডলারের চেয়ে বেশি বিনিয়োগ করতে চাচ্ছি। এটা হবে বাংলাদেশের সবচেয়ে দক্ষ বিদ্যুৎ কেন্দ্র।

“প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য শিগগির কারিগরি ও আর্থিক সম্ভাব্যতা যাচাই শুরু হবে। ছয় মাসের মধ্যে বিদ্যুৎ ক্রয় চুক্তি (পিপিএ) হবে। ২০২০ সালের মধ্যে এই বিনিয়োগ শুরু করব বলে আশা করছি।”

তিনি জানান, ৫০ কোটি ডলার ব্যয়ে আরামকোর সঙ্গে যৌথভাবে একটি এলএনজি গাস টার্মিনাল নির্মাণ করবে অ্যাকয়া পাওয়ার।

অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান বলেন, গত বছর জাতীয় নির্বাচনের দুই মাস আগে প্রধানমন্ত্রীর সৌদি আরব সফরে বাদশা সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালামের সঙ্গে বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনা হয়। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই সেই আলোচনা বাস্তবে রূপ লাভ করেছে।

ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সঙ্গে সৌদি আরবের আকওয়া পাওয়ারের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

তবে সমঝোতা স্মারক কেবল কাগজে সীমাবদ্ধ না রেখে স্বল্প সময়ের মধ্যে প্রকল্প নির্বাচনে পিডিবি ও অ্যাকয়ার কর্মকর্তাদের পরামর্শ দেন সালমান এফ রহমান।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই চুক্তির মাধ্যমে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এক ‘নতুন উচ্চতায়’ গেল। সৌদি কোম্পানি আলফানার সঙ্গে ১০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ এবং জ্বালানি সরবরাহের জন্য সৌদি তেল কোম্পানি আরামকোর সঙ্গে বিপিসির চুক্তি স্বাক্ষর হতে যাচ্ছে। এর সঙ্গে নতুন করে যুক্ত হয়েছে বিদ্যুৎখাতের বড় কোম্পানি অ্যাকয়া পাওয়ার।

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার ১১টি দেশে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ, পরিচালনা এবং পানি পরিশোধন ব্যবসায় যুক্ত আছে আকওয়া পাওয়ার। ৩০ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা রয়েছে কোম্পানিটির।