বঙ্গবন্ধু খুনির বিষয়ে কানাডায় আইনি লড়াইয়ের এক ধাপে জিতেছে বাংলাদেশ

স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি নূর চৌধুরীর বিষয়ে কানাডায় আইনি লড়াইয়ের একটি ধাপে জিতেছে বাংলাদেশ। কানাডার অটোয়া এই লড়াইয়ে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে হেরে গেছে।  

১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যাকারীদের অন্যতম নূর চৌধুরী। তিনি বর্তমানে কানাডায় বসবাস করছেন। তার বিষয়ে বাংলাদেশকে তথ্য প্রদানে অস্বীকৃতি জানাচ্ছিল অটোয়া। এ নিয়ে আইনি লড়াইয়ে ১৮ই সেপ্টেম্বর ফেডারেল কোর্ট অব কানাডা একটি নির্দেশ দিয়েছে।

তাতে কানাডায় অভিবাসী মর্যাদা পাওয়া নূর চৌধুরী সম্পর্কিত তথ্য প্রকাশ না করার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার তা পুনঃনিরীক্ষা করতে বলা হয়েছে। দ্য কানাডিয়ান প্রেসের উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে দ্য ভ্যানকোভার সান।

নূর চৌধুরী ও তার স্ত্রী ১৯৯৬ সালে কানাডা সফরে যান। এর অল্প পরেই তারা সেখানে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় চেয়ে আবেদন করেন। তার অনুপস্থিতিতে ১৯৯৮ সালে তাকে অভিযুক্ত করা হয় বাংলাদেশে। অপরাধের ভয়াবহতার কারণে কানাডায় তাকে অগ্রাহ্য করা হয়। কিন্তু তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়নি।

কানাডায় তার অবস্থানের বিষয়ে বাংলাদেশকে তথ্য জানানোর বিষয়ে একটি অনুরোধ গত বছর প্রত্যাখ্যান করেন অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী। এতে ফেডারেল প্রাইভেসি আইনের একটি ব্যতিক্রম আনতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।