পিবিআই পুলিশের চেষ্টায় ৮ লাখ টাকা ফিরে পেলো বাড়িওয়ালা

আশুলিয়ায় ভাড়াটিয়া কর্তৃক বাড়ির মালিককে অপহরন করে ১০ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়া যাওয়ার অভিযোগে মামলার এজাহার নামীয় আসামী মোহনকে নওগাঁ থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা জেলা পুলিশ।

গত ২৬ আগস্ট সোমবার মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সালেহ ইমরানের নেতৃত্বে নওগাঁ সদর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে নগদ ৫ লাখ টাকা এবং উক্ত টাকা দিয়ে কেনা একটি নতুন এপাচি আরটিআর মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী মোহন নওগাঁ জেলার মনোহরপুর গ্রামের বাদল আলীর ছেলে। এ ঘটনায় ঘটনার ভোক্তভোগী আশুলিয়ার থানার নিশ্চিন্তন্তপুর গ্রামের নাজমুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, আসামী মোহন প্রায় দশ বছর যাবৎ মামলার বাদী নাজমুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থাকত। গত ১ আগস্ট মামলার বাদী তার জমি বিক্রির ১০ লাখ টাকা ব্যাংকে রাখার জন্য বাড়ি থেকে বের হলে ভাড়াটিয়া মোহন কৌশলে তাকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে নওগাঁ নিয়ে যায় এবং টাকা রেখে তাকে রাস্তায় ফেলে চলে যায়।

ঘটনা সংক্রান্তে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা এস আই সালেহ ইমরান জানান, মামলাটি বাদীর আবেদনের প্রেক্ষিতে পিবিআই হেডকোয়ার্টার্স স্ব উদ্যোগে গ্রহণ করে। তারপর থানা থেকে মামলা হস্তান্তরের ৪ দিনের মাথায় আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।

তিনি আরও বলেন, মামলার বাদী এবং আসামী আগে থেকেই পূর্ব পরিচিত। আসামী মোহন বাদীকে নানা বলে ডাকত। আসামী মোহন টাকার লোভে এই কাজটি করেছে মর্মে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। ইতিমধ্যে তার কাছ থেকে প্রায় ৮ লাখ টাকার মত উদ্ধার করা হয়েছে। বাকী টাকার মধ্যে এক লাখ টাকা দিয়ে আসামী পক্ষ বাদীর সাথে আপোষ মীমাংসার চেষ্টা করছে। আসামীকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তানজীন মাহমুদ (তনু), নিজস্ব প্রতিনিধি