যাত্রাবাড়ীর আবাসিক হোটেলে স্ত্রীর ওড়নায় তরুণের ঝুলন্ত লাশ

নাসির উদ্দিন(২১) নামের এক তরুণের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছেরাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানাধীন এলাকায় একটি আবাসিক হোটেল থেকে। এ সময় তার গলায় স্ত্রীর ওড়না দিয়ে ফাঁস দেওয়া ছিল বলে জানা গেছে। 

সোমবার (৫ আগস্ট) দুপুর ১টার দিকে থানার সায়দাবাদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নাসিরের স্ত্রী সানজিদা আক্তার তাকে উদ্ধার করে দুপুর সোয়া ২টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত নাসিরের কুমিল্লা সদর থানার মুরাদনপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি ভিক্টোরিয়া কলেজে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে লেখাপড়া করতেন।

সানজিদা আক্তার জানান, দেড় বছর প্রেমের সম্পর্কে ১২ জুন কুমিল্লায় কোর্ট ম্যারেজের মাধ্যমে তাদের বিয়ে হয়। আজ সকালের নাসির কুমিল্লার গ্রামের বাড়ি থেকে সায়দাবাদ আসেন। পরে তিনি ফোন দিলে সানজিদাও নারায়ণগঞ্জ থেকে সায়দাবাদ আসেন।

সানজিদা আরও জানান, সায়েদাবাদে একটি আবাসিক হোটেলে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তারা ওঠেন। পরে নাসিরের মোবাইলে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে এক নারীর ম্যাসেজ আসে। তা নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নাসির সানজিদার ব্যবহৃত ওড়না নিয়ে

হোটেল সংলগ্ন বাথরুমে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন। দরজা না খুললে হোটেলের আশেপাশের লোকজনকে নিয়ে দরজা ভেঙে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের এএসআই আব্দুল খান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহটি হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।