ফরিদপুরে ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ!

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার মানিকদহ ইউনিয়নের পুকুরিয়া ব্রাম্মণকান্দা এ.এস একাডেমীর প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল সালাম মিয়াসহ তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবিষয়ে অত্র বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য মোঃ আলমগীর কবির ফরিদপুরের জেলা প্রশাসকের কাছে একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিভাবক সদস্য মোঃ আলমগীর কবির বলেন, ব্রাম্মণকান্দা এ.এস একাডেমীর তহবিল হইতে কয়েক বছরে সুকৌশলে ডাবল ডাবল ভাউচার দিয়ে ৬ লাখ ২৪ হাজার ১৫৫ টাকা তুলে নেয় প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল সালাম মিয়া। এছাড়াও সহকারী ক্রীড়া শিক্ষক এমএম শাহিদুর রহমান বাবু স্কাউট ফি বাবদ ডাবল ভাউচার করে ১৫ হাজার ৩৫০ টাকা ও সহকারী প্রধান শিক্ষক এনামুল কবির চার বছরে আয়-ব্যায় হিসাবের ফ্লুইড দিয়ে কাটাকাটি করে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ করেছেন। উক্ত বিদ্যালয়ের ৩ সদস্য অডিট কমিটি ম্যানেজিং কমিটির কাছে রিপোর্ট প্রতিবেদন জমা দিলে এই তথ্য বেড়িয়ে আসে। এবিষয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

প্রধান শিক্ষক আব্দুল সালাম সাংবাদিকদের বলেন, সদস্যরা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

অত্র বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোঃ মশিউর রহমান জাদু মিয়া বলেন, আমি দায়িত্ব নেওয়ার পরে শিক্ষক ও অভিভাবক প্রতিনিধিগণ বিদ্যালয়ের বিগত কয়েক বছরের আয়-ব্যায়ের হিসাব নেওয়ার জন্য আমার কাছে আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে ৩ সদস্য বিশিষ্ট অডিট কমিটি গঠন করে তাদেরকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়। অডিট প্রতিবেদনে দেখা যায় যে, বিগত কয়েক বছরের আয়-ব্যায়ের হিসাবে গড়মিল রয়েছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সৈয়দ আহমেদ জামশেদ বলেন, পুকুরিয়া বাম্মণকান্দা এ.এস একাডেমীর বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি