ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতিসহ পাঁচ নেতাকে চিঠিতে হত্যার হুমকি

ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেলসহ পাঁচ নেতাকে চিঠিতে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে ওই চিঠি রাজধানীর পল্টনে অবস্থিত মুক্তিভবনে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পৌঁছে বলে নিশ্চিত করেছেন ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ‘স্যার, দিস ইজ নট এনিমি। দিস ইজ অ্যা ফ্রেন্ড। গো আউট ফ্রম দ্যা ডিইউ/জেইউ ক্যাম্পাস অর উইল কিল ইউ। উই উইল স্টাবলিশ ইসলাম।’

হত্যার হুমকি পাওয়া অন্যরা হলেন-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের সহ-সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি ফয়েজ উল্ল্যাহ ফয়েজ, ঢাকা মহানগর সংসদের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি জহর লাল রায়, কেন্দ্রীয় সংসদের শিক্ষা গবেষণা সম্পাদক ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয় এবং ঢাকা জেলা সংসদের সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম সাব্বির।

মেহেদী হাসান নোবেল বলেন, চিঠিটিতে ভোলার চরফ্যাশন পোস্ট অফিসের সিল দেওয়া আছে। তবে প্রেরকের ঠিকানায় ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার আব্দুল হালিমের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে ওই চিঠি হাতে পান জানিয়ে তিনি বলেন, চিঠিতে তার নিজেরসহ আরো চারজনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তারা হলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ, ঢাকা জেলা সভাপতি আরিফুল ইসলাম সাব্বির, ঢাকা মহানগর সভাপতি জহর লাল রায়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয়।

তিনি জানান, হুমকির ঘটনায় পল্টন থানায় সাধারণ ডায়েরি করার প্রস্তুতি চলছে।

এছাড়াও চিঠির বিষয়ে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল এবং সাধারণ সম্পাদক অনিক রায় এক যৌথ বিবৃতিতে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, শিক্ষার গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত, অধিকার আদায়সহ সকল ছাত্র কল্যাণমূলক সংগ্রামে ছাত্র ইউনিয়ন তার ইতিহাস অর্পিত দায়িত্ব পালন করে যাবে। পূর্বের ন্যায় সকল হুমকি উপেক্ষা করে শিক্ষাঙ্গনে সাম্রাজ্যবাদ, মৌলবাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম আমরা অব্যাহত রাখবো।