নিজেদের বাংলাদেশি পরিচয় দিতে চায় না অর্ধেক তরুণ-তরুণী!

দেশের প্রায় অর্ধেক তরুণ-তরুণী তাদের জাতীয়তা হিসেবে বাংলাদেশি পরিচয় দিতে চান না। এ ক্ষেত্রে তারা ধর্ম, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও পেশার মাধ্যমে তাদের পরিচয় প্রকাশ করতে বেশি পছন্দ করেন। বাংলাদেশের তরুণ সমাজের ওপর এক জরিপ চালানোর পর এমন তথ্য প্রকাশ করেছে বেসরকারি উন্নয়নমূলক সংস্থা ব্র্যাক।

গতকাল বুধবার (২৪ জুলাই) রাজধানীর লেকশোর হোটেলে সংস্থার পক্ষ থেকে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। সারাদেশের ৪ হাজার ২০০ তরুণ-তরুণীর ওপর জরিপটি চালানো হয়েছে।

জাতীয়তার চেয়ে নিজেদের ধর্মীয়, শিক্ষাগতযোগ্যতা ও পেশার পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন তারা।

প্রতিবেদন বলা হয়, জরিপে তরুণদের জিজ্ঞাসা করা হয়, তারা কীভাবে তাদের পরিচয় প্রকাশ করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন? তাদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি জানান, পরিচয় হিসেবে নিজেদের জাতীয়তা বাংলাদেশি জানানোই তাদের পছন্দের। বাকি ৪৪ শতাংশ তরুণ-তরুণী জাতীয়তাকে বেছে নেননি।

এই ৪৪ শতাংশের মধ্যে নারী ও পুরুষের সংখ্যা প্রায় সমান বলে জানিয়েছে ব্র্যাক।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০ শতাংশ তরুণ-তরুণী নিজেদের পরিচয় প্রকাশে সবকিছুর ওপর ধর্মকে প্রাধান্য দিয়েছেন। ১৪ শতাংশ বেছে নিয়েছে শিক্ষাগত যোগ্যতাকে। আর বাকি ১০ শতাংশ পেশার মাধ্যমে নিজের পরিচয় দিতে পছন্দ করেন।

জরিপে দেখা গেছে, দেশের সব শ্রেণির মধ্যে পরিচয় হিসেবে জাতীয়তাই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। তবে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ধর্মকে পরিচয় হিসেবে প্রকাশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

দেখা গেছে, অস্বচ্ছল তরুণ-তরুণীদের মধ্যে জাতীয়তার মাধ্যমে পরিচয় দেওয়ার প্রবণতা বেশি। অন্যদিকে ধনীদের মধ্যে এভাবে পরিচয় প্রকাশ করার প্রবণতা দরিদ্রদের চেয়ে অর্ধেক।