ছেলেধরা সন্দেহে এক নারীকে গণপিটুনি, পুলিশে সোপর্দ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার মাটিকাটা এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে শিউলি আক্তার (৩০) নামের এক নারীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। শিউলি আক্তার ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার চেচুয়া গ্রামের আমির আলীর মেয়ে।

নিকরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতিন সরকার জানান, বিকেলে ওই নারী পথ ভুল করে মাটিকাটা এলাকায় ঘোরাফেরা করতে থাকে। এসময় তার সাথে থাকা বড় ব্যাগ দেখে স্থানীয় এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়। পরে মেয়েটির ব্যাগ পরীক্ষা করতে চাইলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলে ছেলেধরা সন্দেহ করে কিলঘুসি মারতে থাকে। খবর পেয়ে মতিন সরকার ও অন্যান্য লোকজন গিয়ে নারীটিকে উদ্ধার করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

ভূঞাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ রাশেদুল ইসলাম বলেন, দুইদিন হয় মেয়েটি বাড়ী থেকে পথ ভুল করে এই দিকে চলে এসেছে। আসার পথে বিভিস্থানে তার ব্যাগ পরীক্ষা করার নামে হয়রানির শিকার হতে হয়। এখানেও তার ব্যাগ দেখতে চাইলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। পরে জনতা কিলঘুষি দেয়। আমরা খবর পেয়ে উদ্ধার করে মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসি। তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। পরিবার আসলেই তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।