নারী হামলাকারী আত্মঘাতী হামলা কেড়ে নিলেন ৯ জনের প্রাণ

পাকিস্তানের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের একটি হাসপাতালে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে অন্তত নয়জন নিহত ও আরো ৩০ জন আহত হয়েছেন। একজন নারী হামলাকারী এই আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। রবিবার (২১ জুলাই) সকালের দিকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে বলে দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

পাকিস্তানি তালেবান হিসেবে পরিচিত স্থানীয় জঙ্গিগোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবান-পাকিস্তান (টিটিপি) ডেরা ইসমাইল খান এলাকার হাসপাতালে চালানো এই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

দেশটির স্থানীয় কর্মকর্তারা বলেছেন, ডেরা ইসমাইল খান শহরের একটি রাস্তায় তল্লাশি চৌকিতে দুই পুলিশ সদস্যকে হত্যার পর ওই হাসপাতালে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় এক নারী আত্মঘাতী।

পুলিশ কর্মকর্তা ওয়াকার আহমেদ বলেন, শহরের প্রধান হাসপাতালে ওই দুই পুলিশ সদস্যের মরদেহ যখন নেয়া হয়, তখন বোরকা পরিহিত এক আত্মঘাতী নারী হামলাকারী বিস্ফোরক ভর্তি জ্যাকেটের বিস্ফোরণ ঘটায়। যে কারণে ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন, বিস্ফোরণে হাসপাতালে জরুরি বিভাগের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফলে সেখানে চিকিৎসাধীন অনেক রোগীকে জরুরি ভিত্তিতে শহরের অন্যান্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

টিটিপির মুহাম্মদ খুরাসানি এই হামলার দায় স্বীকার করে এক বিবৃতিতে বলেন, এক মাস আগে কাউন্টার টেরোরিজম পুলিশের অভিযানে তালেবানের দুই কমান্ডারকে হত্যার প্রতিশোধে এই হামলা চালানো হয়েছে। তবে হামলাকারী নারী নন বলে তিনি দাবি করেন।