আবাসিক হোটেল থেকে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে যুবতীসহ পুলিশ আটক

যশোরের বেনাপোলে আবাসিক হোটেল থেকে এক পুলিশ কনস্টেবলকে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে যুবতীসহ আটক করেছে বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাদের আটক করা হয়।

আটক পুলিশ কনস্টেবলের নাম রবিউল ইসলাম। তিনি নাভারণ হাইওয়ে পুলিশের কনস্টেবল। আটক যুবতী মিম (২৫) বেনাপোল পোর্ট থানার গাজিপুর গ্রামের মিজানুরের মেয়ে। তিনি পিমা নামে একটি বেসরকারি সিকিরিউটি কোম্পানির নিরাপত্তা প্রহরী।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বেনাপোল বাজারের সানসিটি হোটেলে অভিযান চালানো হয়। সেখানে একটি কক্ষের ভেতর থেকে পুলিশ কনস্টেবল রবিউল ইসলাম ও মিমকে যুবতীকে আটক করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, মিম স্বামী পরিত্যক্তা। তার একটি ৪ বছরের মেয়ে আছে। অভাব অনটনের কারণে সামান্য বেতনের চাকরির পাশাপাশি তিনি অবৈধ কাজ করে থাকেন বলে শোনা যায়। ধরা পড়ার পর তার প্রমাণ মিলেছে। তার পৈত্রিক বাড়ি যশোরের পুলেরহাটে। তিনি বেনাপোলের গাজিপুর এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই (উপ-পরিদর্শক) আব্দুল লতিফ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি এবং থানার এএসআই শরিফুল তাদের ‘সানসিটি’ হোটেলের একটি কক্ষ থেকে হাতেনাতে আটক করি।

এ ব্যাপারে নাভারণ হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ এস আই রফিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি এসপি স্যারকে জানিয়েছি। তাকে আপাতত বরখাস্ত করা হবে। আইনগত দিক বিবেচনা করলে তার চাকরি থাকবে না বলে জানান তিনি।