স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা, মামলা না করতে পারায় ৯৯৯ তে কল করে অভিযোগ

পিরোজপুরের কাউখালীতে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের চেষ্টার ৩ দিন পরেও মামলা না করতে পারায় মেয়েটি নিজেই ৯৯৯ তে কল করে অভিযোগ দাখিল করেন।

জানা যায়, উপজেলার বেকুটিয়া গ্রামের জেলে ইউসুফ আলী হাওলাদারের মেয়ে শামছুনেচ্ছা বালিকা বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী আখি আক্তার (১৩) কে সোমবার (১ জুলাই) সন্ধ্যায় ঘরে একা পেয়ে প্রতিবেশি সুলতান হোসেনের ছেলে আল আমিন (২০) ধর্ষনের চেষ্টা করে।

ঘটনার সময় মেয়েটির পিতা ইউসুফ আলী কঁচা নদীতে মাছ ধরতে যায় এবং মা ছোট মেয়েকে নিয়ে হুজুরের বাড়িতে ঝাড় ফুকের জন্য যায়। এই সুযোগে তার ঘরে গিয়ে মেয়েটির কাছে প্রথমে পানি চায় পরে মেয়েটি পানি আনতে গেলে লম্পট আল আমিন ঘরের ভিতর ঢুকে ঘরের দরজা বন্ধ করে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। মেয়েটি আত্ম রক্ষাতে লম্পটের হাতে কামড় দিয়ে ছুটে গিয়ে দা হাতে নিয়ে চিৎকার দিলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসলে লম্পট আল আমিন ঘরের দরজা খুলে দ্রুত পালিয়ে যায়।

ঘটনাটি প্রভাবশালীরা বিচারের নামে ধামা চাপা দেওয়ার জন্য মেয়ের বাবা মাকে ঘটনাটি কাউকে না জানানো এবং থানা পুলিশকে অবহিত না করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। পরে ঘটনার ৩ দিনও কোন সুরাহা না পেয়ে মেয়েটি আত্মহত্যা চেষ্টা করলে বাবা মায়ের অনুরোধে বিচারের আশায় বৃস্পতিবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যায় মেয়ে নিজেই ৯৯৯ কল করে অভিযোগ প্রদান করেন।

এরপর কাউখালী থানা পুলিশের এস আই মজিবর রহমান এক থেকে দেড় ঘণ্টার মধ্যে ঘটনাস্থান পরিদর্শন করে মেয়েসহ মেয়ের অভিভাবকের সাক্ষাৎকার লিপিবদ্ধ করে থানায় নিয়া আসে।

এ ব্যাপারে কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান ঘটনার সত্যত্বা রয়েছে তবে যাচাই বাছাই ছাড়া মামলা নেওয়া যাচ্ছে না।