বান্দরবানে নিখোঁজের ৪ দিন পর দুই পর্যটকের লাশ উদ্ধার

বান্দরবানের নিখোঁজের ৪ দিন পর নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ ও জান্নাত আরার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার সকালে রুমার নিয়াংক্ষ্যং পাড়ার নিচে পাইন্দু খাল থেকে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সাইফুল্লার মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। পরে ঐ দিন বিকাল ৪টার দিকে একই জায়গা থেকে জান্নাত আরার লাশ উদ্ধার করে উদ্ধারকর্মীরা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নিখোঁজ দুই পর্যটককে খুজতে সোমবার সকাল থেকে স্থানীয়দের পাশাপাশি সেনা পুলিশ ও ডুবুরি দলের সদস্যরা পাইন্দু খালের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। সকালে ঘটনাস্থল থেকে ৭ কিলোমিটার দুরে নিয়াংক্ষ্যং এলাকায় নৌকর্মকর্তা সাইফুল্লার লাশ পাওয়া যায়। পরে বিকাল ৪ টার দিকে একই এলাকায় নিখোঁজ জান্নাত আরার লাশও পাওয়া যায়। মরদেহ দুটি উদ্ধার করে প্রথমে রুমা সেনাবাহিনীর গ্যারিসনে নিয়ে আসা হয়। পরে সেখান থেকে ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কাশেম চৌধুরি বলেন, নিখোঁজ নৌ-কর্মকর্তা ও কলেজ ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে লাশ দুটি রুমা গ্যারিসনে রয়েছে। পরে ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

রুমা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মৈা: শমিসুল আলম বলেন, নিখোঁজ নৌ-কর্মকর্তার লাশ সকালে উদ্ধার করা হয় এবং একই এলাকা থেকে বিকালে কলেজ ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত শনিবার নৌবাহিনীর ৪ কর্মকর্তাসহ ৬ পর্যটক রুমার তিনাপ সাইতার ঝর্না দেখতে যায়। সন্ধায় ফেরার পথে পাইন্দু খাল পার হওয়ার সময় পানির স্রোতে সেকেন্ড লে. সাইফুল্লাহ ও জান্নাত আরা ভেসে যায়। দুইদিন পর সোমবার তাদের লাশ পাওয়া যায়। তাদের সাথে থাকা বাকী ৪ পর্যটক হল সাব লে: আসিফ, লে: নোমায়ের, লে: তৌকির ও আবু সাইদ। তারা সবাই ঢাকা নৌবাহিনী অফিসের কর্মকর্তা।

 

সোহেল কান্তি নাথ, বান্দরবান প্রতিনিধি