প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কলেজছাত্রীকে ব্লেড দিয়ে জখম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নুসরাত জাহান স্বর্ণা (১৭) নামে এক কলেজছাত্রীকে ব্লেড দিয়ে জখম করেছে শহিদুল ইসলাম দুলাল (২৮) নামে এক যুবক। গতকাল সোমবার বিকেলে উপজেলার পৌর শহরের পশ্চিম কলেজপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত কলেজছাত্রীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম দুলাল মঠবাড়িয়া উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের কালিকাবাড়ি গ্রামের সামসুল হকের ছেলে। তবে পুলিশের দাবি- দুলাল কলেজছাত্রীকে ব্লেড দিয়ে আঘাত করে নিজের হাতও জখম করে। তাদের মধ্যে পূর্বে জানাশোনা ছিল।

আহত কলেজছাত্রীর বাবা সৌদি প্রবাসী জাকির হোসেন মৃধা জানান, মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী নুসরাত প্রাইভেট পড়ে বাসায় যাওয়ার পথে তাকে ছুরিকাঘাত করে দুলাল। সে বেশ কিছুদিন ধরে নুসরাতকে কলেজে ও প্রাইভেটে আসা যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করতো। বখাটে দুলাল প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ক্ষিপ্ত হয়ে এ কাজ করে।

কলেজছাত্রীর নানা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ হাওলাদার বলেন, এ ঘটনার আগেই নাতিকে উত্ত্যক্ত করার জন্য মঠবাড়িয়া থানায় দুলালের নামে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলাম।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, খবর পেয়ে আমি মঠবাড়িয়া হাসপাতালে গিয়েছিলাম। কলেজছাত্রীর ওপর হামলাকারী দুলালও হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। দুলাল সেখান থেকে পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।