ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতিকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম

শরীয়তপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আকতার হোসেন ঢালীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার (২ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মনোহর বাজার মোড়ে পেট্রোল পাম্পের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

সে সময় গুরুতর আহত আক্তারকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠায় এবং এক সন্ত্রাসীকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

আক্তার হোসেন ঢালী রুদ্রকর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের রুদ্রকর গ্রামের আনোয়ার হোসেন ঢালীর ছেলে।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আকতার ঢালীর বড় ভাই রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য দেলোয়ার হোসেন ঢালী জানায়, আমি ও আমার ছোট ভাই আকতার শরীয়তপুর আদালত থেকে একটি মামলার হাজিরা শেষে মোটর সাইকেলে যোগে বাড়িতে ফিরছিলাম।

তখন মনোহর বাজার প্রেট্রোল পাম্পের সামনে এলে ৩/৪টা মোটরসাইকেল ৮/১০ জন সন্ত্রাসীর একটি দল আমাদের মোটরসাইকেলটির সামনে এসে থামায় এবং আমার পেছনে বসে থাকা আমার ছোট ভাইকে টেনে হিছরে নামিয়ে চাপাতি, চাইনিজ কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায়। এ সময় আমি বাঁধা দিতে গেলে আমাকেও পিটায়। এ ঘটনাটি মনোহরা মোড়ের সিসি ক্যামেরায় রেকর্ড হতে পারে।

এ বিষয়ে পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম উদ্দিন বলেন, বিষয়টি পূর্ব শত্রুতার জেড়ে ঘটেছে। আকতার ঢালীর উপর হামলার ঘটনায় পশ্চিম ধানুকা গ্রামের মুন্সী সাইফুর রহমানের ছেলে জহিরুল ইসলাম প্রান্তকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি ও বাকি জড়িতদের গ্রেফতারের চেস্টা করছি।