বাজারে আসার ১ মাসের মধ্যেই কে২০ সিরিজের ১০ লাখ ইউনিট বিক্রি

বাজারে আসার প্রায় ১ মাসের মধ্যে রেডমি কে২০ ও রেডমি কে২০ প্রোর ১ মিলিয়ন (১০ লাখ) ইউনিট বিক্রি হয়েছে। শাওমির মুখপাত্র ও প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্টের পরিচালক ডনোভান সাং এক টুইটে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফোনটি এখন পর্যন্ত শুধু চীনের বাজারেই পাওয়া যাচ্ছে। ইউরোপ ও অন্যান্য এশিয়ান দেশগুলোতে রেডমি ২০ ফোনটি ছাড়া হয়েছে শাওমি মি৯টি নামে। এই অঞ্চলগুলোতে রেডমি কে২০ প্রো সংস্করণটি বাজারে আসবে শাওমি মি ৯টি প্রো নামে।

চলতি মাসের মাঝামাঝিতে ফোনটি ভারতের বাজারে ছাড়া হবে। আশা করা হচ্ছে, সেখানেও কে২০ সিরিজটি বিক্রির রেকর্ড গড়বে।

রেডমি কে২০ প্রো

ফ্ল্যাগশিপ ফোনটিতে আছে ৬ দশমিক ৩৯ ইঞ্চি ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ১০৮০ বাই ২৩৪০ পিক্সেল। প্রসেসরে আছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫। ফোনটির পেছনে ৪৮, ৮ ও ১৩ মেপাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। সামনে আছে ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। নিরাপত্তার জন্য এতে দেওয়া হয়েছে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট। ব্যাকআপ দিতে আছে ৪০০০ এমএএইচের ব্যাটারি, যা ২৭ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। এতে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট ও হেডফোন জ্যাক রয়েছে।

রেডমি কে২০ প্রোয়ের ৬ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ সংস্করণের দাম ৩৬২ ডলার (৩০ হাজার ৪০৮ টাকা)।

রেডমি কে২০

ফোনটিতে কে২০ প্রোয়ের প্রায় সব স্পেসিফিকেশনই রয়েছে। দুটি ফোনের ক্যামেরা সেটআপ ও ডিসপ্লের আকার একই। তবে ফোনটির প্রসেসরের শক্তি কে২০ প্রোয়ের চেয়ে কম। এতে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০ প্রসেসর। ব্যাকআপের জন্য থাকা ৪০০০ এমএএইচের ব্যাটারিটি সাপোর্ট করবে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং।

রেডমি কে২০ এর ৬ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ সংস্করণের দাম ২৮৯ ডলার (২৪ হাজার ২৬৭ টাকা)। ফোন দুটি পাওয়া যাবে গ্ল্যাসিয়ার ব্লু, ফ্লেম রেড ও কার্বন ব্ল্যাক রঙে।