শাখা-সিঁদুর পড়ে শপথ নিলেন নববধূ ও সাংসদ নুসরাত

টালি পাড়ার জনপ্রিয় নায়িকা ও সাংসদ নুসরাত জাহান। গেল ১৯ জুন (বুধবার) তুরস্কের বোদরুম শহরে স্বপ্নের মতো বিয়ে সেরেছেন এই অভিনেত্রী। নুসরাতের জীবন সঙ্গী নিখিল জৈন। পেশায় তিনি বস্ত্র ব্যবসায়ী ।

বিয়ের মেহেদী এখনও মুছে যায়নি তার হাত থেকে। হয়নি বিবাহোত্তর সংবর্ধনাও। কিন্তু সে জন্য শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান পিছিয়ে থাকবে এমনটা তো হতে পারেনা। আর তাই এক সপ্তাহ পর লোকসভায় এসে তিনি এবং তার বন্ধু ও সাংসদ মিমি চক্রবর্তী শপথ গ্রহণ করেন।

মঙ্গলবার অধিবেশন শুরুর পর স্পিকার ওম বিড়লা বলেন, যে সব সাংসদরা এখনো শপথ গ্রহণ করেননি, তারা যেন আগে শপথ নেন। তখনই এগিয়ে যান যাদবপুর আসন থেকে নির্বাচিত মিমি ও বসিরহাট আসন থেকে নির্বাচিত নুসরাত। বাংলায় শপথবাক্য পাঠ করেন তৃণমূল কংগ্রেসের এই দুই সাংসদ।

লোকসভায় সাদা সালোয়ার-কামিজ পরে হাজির হয়েছিলেন মিমি চক্রবর্তী। অন্যদিকে একদমই ভিন্ন সাজে এসেছিলেন নুসরাত।

নুসরাতের দু’হাত জুরে ছিল চুড়ি। সিঁথিতে ছিল চওরা সিঁদুর। গায়ে ছিল সাদা-বেগুনি পাড়ের শাড়ি। বাঙালি নববধূদের যে সাজে সচরাচর দেখা যায় ঠিক সেই সাজেই সেজে ছিলেন বসিরহাটের তারকা সাংসদ নুসরাত জাহান।

এদিকে এক সপ্তাহ পর শপথ গ্রহণ নিয়ে এরই মাঝে সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক ট্রোলের শিকার হতে হয়েছে নুসরাতকে। শুধু তাই নয়, যখন তার কেন্দ্রের অন্তর্গত সন্দেশখালিতে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি হয়েছে তখনও সেখানে উপস্থিত থাকেননি এই জনপ্রিয় তারকা।

প্রসঙ্গত, ১৭ জুন (সোমবার) ছিল লোকসভার সদস্যদের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। পশ্চিমবঙ্গের বাকি সাংসদরা উপস্থিত থাকলেও সংসদের প্রথম দিনেই ছিলেন না মিমি ও নুসরাত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here