অর্থদাতাদের দৃষ্টি আকর্ষণই পুলিশের ওপর হামলার মূল কারণঃ সিআইডি

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) জানিয়েছে রাজধানীর মালিবাগে গত ররিবার (২৬ মে) পুলিশের গাড়িতে হামলা চালানোর মূল কারণ ছিল অর্থদাতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ ও অর্থ সাহায্য সচল রাখার জন্য। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর মালিবাগে সিআইডির প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিআইডির অতিরিক্ত আইজিপি ও প্রধান মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম এ কথা জানান।

এছাড়াও পুলিশ সদস্যদের ভেতরে ভয়-ভীতি সৃষ্টি করাও এ হামলার আরেকটি উদ্দেশ্য ছিল বলে জানান মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম।

এ বিষয়ে শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘হামলাকারীরা অর্থদাতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এই হামলা চালায়। তারা যে সক্রিয় রয়েছেন অর্থদাতাদের তা দেখাতে এসব হামলা করা হয়।’

বিস্তারিতভাবে অতিরিক্ত আইজিপি বলেন, ‘দুর্বৃত্তরা অর্থদাতাদের কাছে এই হামলার কথা বলে আরও বেশি টাকা আদায় করার চেষ্টা করবে। এমনও হতে পারে আরও বড় হামলার প্রতিশ্রুতি দিয়ে অর্থদাতাদের কাছ থেকে টাকা আনার চেষ্টা করবে হামলাকারীরা।’

হামলার আরেকটি কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘হামলাকারীরা চায় পুলিশ সদস্যরা যেন ভয় পায়। পুলিশের সদস্যদের মানসিকভাবে ভেঙে দিতে এবং তাদের মনোবল দুর্বল করে দিতেই এ হামলা চালিয়েছে তারা।’

প্রসঙ্গত রবিবার রাত ৯টায় মালিবাগ মোড়ে সিএনজি পাম্পের বিপরীতে ফ্লাইওভারের নিচে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের গাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ডিএমপির ট্রাফিক পূর্ব (সবুজবাগ) বিভাগের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) রাশেদা খাতুন, রিকশাচালক লাল মিয়া আহত হন।

ট্রাফিক পুলিশের পূর্ব বিভাগের (সবুজবাগ) সার্জেন্ট এনামুল হক জানান, মালিবাগ মোড়ে দায়িত্বরত অবস্থায় পুলিশের গাড়ির পাশে একটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এতে পাশে থাকা এএসআই রাশেদা ও রিকশাচালক আহত হন। রাশেদার বাঁ পায়ে ও রিকশাচালকের মাথায় আঘাত লেগেছে।

আহত রাশেদা জানান, তিনি রাস্তায় দায়িত্বরত ছিলেন। এ সময় একটি ককটেল তার পাশেই বিস্ফোরিত হয়। এতে তার পায়ে আঘাত লাগে। পাশে পুলিশের গাড়ির পেছনে কিছুটা আগুন ধরে যায়।

এ হামলার দায় স্বীকার করেছে আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)।