ঈদের পোষাক কিনে দিতে না পারায় দুই সন্তানকে হত্যা করে মার আত্মহত্যা

যশোরের শার্শার চালিতাবাড়ীয়া দীঘা গ্রামে ঈদে সন্তানদের নতুন জামাকাপড় কিনে দিতে না পেরে ও সাংসারিক অভাব অনাটনের দায় এড়াতে বিষ খাইয়ে দুই ছেলে-মেয়েকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছেন এক মা।

রবিবার (২৬ মে) দিবাগত রাত আনুমানিক ১১টার সময় কীটনাশক বিষ খাইয়ে ছেলে ও মেয়েকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেন মা হামিদা খাতুন (৩৫)। দুই কন্যার নাম- শরিফা খাতুন (১১) ও শিশুপুত্র সোহান হোসেন (৪)।

তাৎক্ষণিক পারিবারিক ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, হতদারিদ্রতার কারণে সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরায়। ফলে অভাব-অনটন লেগে থাকার পাশাপাশি ঝামেলা লেগেই আছে সংসারে।

কদিন পরেই আসছে পবিত্র ঈদ। ফলে আসন্ন ঈদে সন্তানদের নতুন জামা কাপড় কেনাকাটাসহ সাংসারিক অভাব অনাটনের নানা বিষয় নিয়ে রবিবার রাত আনুমানিক ১০টায় দিকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝামেলা ও তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রী হামিদা খাতুন নিজে কন্যা শরিফা ও শিশু পুত্র সোহানকে বিষ ট্যাবলেট খাওয়ায়ে মেরে ফেলে। এর পরপরই তাদের মৃত্যু নিশ্চিত করে সে নিজেও বিষ ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন।