কুড়িগ্রামে বিরল প্রজাতির প্রাণী ‘বনরুই’ উদ্ধার

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের কাশিম বাজার এলাকার ছনবান্দা গ্রামের আব্দুর রশীদের বাড়ি থেকে একটি বিরল প্রজাতির বনরুই উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৪ মে) দুপুরে বনরুইটি উদ্ধার করে নাগেশ্বরী উপজেলা বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, একটি প্রতারক চক্র বিরল বন্যপ্রাণী বনরুইটি বেশি দামে বিক্রির উদ্দেশ্যে ভারতের আসাম রাজ্য থেকে নিয়ে আসে। পরে ওই চক্রের সদস্য কচাকাটা কাশিমবাজার ছনবান্দা গ্রামের মৃত মনছের আলীর ছেলে আব্দুর রশিদের বাড়িতে বস্তাবন্দি করে বনরুইটি লুকিয়ে রাখে।

পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (২৩ মে) রাতে স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজু আহম্মেদের উপস্থিতে বিরল প্রাণীটিকে উদ্ধার করে কচাকাটা থানায় নিয়ে আসে এবং শুক্রবার বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে।

বলদিয়া ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য রাজু আহম্মেদ জানান, স্থানীয় একটি চক্র ভারতের আসাম রাজ্য থেকে প্রাণীটি নিয়ে এসে বিক্রির উদ্দেশে আব্দুর রশিদের বাড়িতে রাখে। তবে রশিদ তাকে জানিয়েছে ছেলের রোগের ওষুধ তৈরিতে বনরুইটি তিনি আনিয়েছেন।

নাগেশ্বরী উপজেলার কচাকাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক খলিল জানান, বনরুইটি উদ্ধার করে উপজেলা বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নাগেশ্বরী উপজেলা বন কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান শাহীন জানান, এরইমধ্যে বনরুইটি রংপুর বিভাগীয় বন কর্মকর্তার অফিসে পাঠানো হয়েছে। প্রাণীটি সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি