ফোন করে কৃষকদের ডেকে নতুন ধান ক্রয় করছেন খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে কৃষকদের মোবাইলে ফোন করে ডেকে ডেকে নতুন ধান ক্রয় করছেন খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা। বুধবার (২২ মে) সকাল থেকে ফোনেই ব্যস্ত কিশোরগঞ্জের ভৈরব খাদ্য গুদামের কর্মকর্তা খোরশেদ আলম মাসুদ। তালিকাভুক্ত কৃষকদের ফোন করে ধান বিক্রি করতে বলছেন তিনি।

সকালে মোবাইল ফোন পেয়ে জগন্নাথপুরের হাবিবুর রহমান ধান নিয়ে হাজির খাদ্যগুদামে। এক হাজার কেজি ধান বিক্রি করে প্রতিশ্রুত ২৬ হাজার টাকাই পেয়েছেন তিনি। ন্যায্যমূল্যে ধান বিক্রি করতে পেরে তিনি খুবই আনন্দিত।

খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা খোরশেদ আলম জানান, কৃষকদের উৎপাদিত ধানের নায্য দাম পাওয়া জন্যই আজ কৃষক হাবিবুর রহমানকে দিয়েই ভৈরবে ধান ক্রয় অভিযান শুরু করা হয়েছে। নতুন ধান ক্রয় চলবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত।

তিনি আরও বলেন, পৌর এলাকাসহ সাত ইউপির ৩৩৩ জন কৃষকের কাছ থেকে এবার ধান কেনা হবে। এতে সরকারি গুদামে জমা হবে ১৮৪ টন ধান। কৃষকরাও পাবে কষ্টের ন্যায্যমূল্য।