ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী জারিন দিয়া

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হওয়ায় পর ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দলটির বিগত কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য জারিন দিয়া। এরপর ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি। সোমবার (২০মে) রাতে এই ঘটনার পর তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ছাত্রলীগের গত কমিটির সমাজসেবা সম্পাদক রানা হামিদ বলেন, ‘বহিষ্কারের ক্ষোভ থেকে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে দিয়া। তাকে আমরা হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি। ওয়াশ করা হয়েছে। এখন তার শারীরিক অবস্থা ভালো।’

জানা গেছে, সোমবার রাত ৯টার দিকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ছাত্রলীগ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয় জারিন দিয়াকে। এর তিন ঘণ্টা পর রাত ১২টার দিকে ছাত্রলীগ সভাপতি রেওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর প্রতি কিছু প্রশ্ন রেখে ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জিয়া হল ছাত্রলীগকর্মী সালমান সাদিককে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে সাময়িক বহিষ্কার চারজন হলেন- বিজ্ঞান অনুষদ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী মুরসালিন অনু, জিয়া হল ছাত্রলীগের সদস্য কাজী সিয়াম, কর্মী সাজ্জাদুল কবির এবং ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সদস্য জারিন দিয়া।