বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে ধরা খেয়েছেন সংগীতশিল্পী মিলা

১০ বছরের প্রেমের সম্পর্ককে পরিণয়ে রূপ দিতে ২০১৭ সালের ১২ মে বৈমানিক পারভেজ সানজারির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন সংগীতশিল্পী মিলা। কিন্তু বিয়ের পরই স্বামীর সঙ্গে একাধিক মেয়ের সম্পর্কের কথা জানতে পারেন তিনি। বিমানবালার সঙ্গে তার স্বামীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে। বিয়ের পর পাঁচ মাস পার না হতেই বিচ্ছেদের পথে হেঁটেছেন এই তারকা।

সম্প্রতি দেশের একটি এফএম রেডিওতে রাতের আড্ডায় উপস্থিত হয়ে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন মিলা। সেখানে তিনি বলেন, ‘সম্পর্কে জড়ানোর সময় আমি এতটাই বোকা ছিলাম যে, রাস্তা থেকে একজন কমলা লেবুওয়ালা বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আসলেও তাকে আমি বিয়ে করতাম।

সানজারির সঙ্গে গুড মেমোরি ছিল বলেই বিয়েটা হয়েছিল। অন্যথায় বিয়েটা হতো না। আর এই গুড স্মৃতির জন্যই আমি ধরা খেয়ে গিয়েছি। আমি যদি একটু টেকনিক্যাল হতাম তাহলে আমি তাকে কখনো বিয়ে করতাম না। আমি সমাজ-পরিবার থেকে যেসব মূল্যবোধগুলো শিখেছি, যেগুলোর বিপক্ষে গেলে আমি কথা বলেছি। প্রশ্নবিদ্ধ হলেও সেটা সমাজের জন্য ভালো। তাছাড়া একজন রকস্টার হিসেবেও আমার এটা আমার দায়িত্ব।‘

তিনি আরো বলেন, ‘প্রথমদিকে সানজারির আলাভোলা চেহারা দেখলে মনে হবে যেন সে খুবই ভদ্র। কিন্তু এরপরে তার যে নিষ্ঠুর চেহারা দেখেছি সেটা বলার ভাষা আমার নেই। সে আমার গায়ে বার বার হাত তুলেছে। হাত তুলে সে বলে, ”না আমি তো কিছু করিনি”। সে এটা এতো কনফিডেন্সিলি করেছিল যে আমার কিছু বলা ছিলো না। তবে আমি তাকে এতবার ক্ষমা করেছি যে, সে আমার ক্ষমার মূল্যবোধটা হারিয়ে ফেলেছিলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here