ধর্ষণের কথা প্রকাশ করায় কিশোরীকে আবারো ধর্ষণ!

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় কিশোরীকে (১৬) পুনরায় ধর্ষণকালে এক জেলেকে স্থানীয়রা হাতেনাতে ধরে আটক করেছে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই রাতেই ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে এবং অভিযুক্ত ধর্ষক সোহেল গাজীকে (২৫) আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

মঙ্গলবার (১৪ মে) এ ঘটনায় মহিপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ধর্ষিতা ওই কিশোরীকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

মহিপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কুয়াকাটার মম্বিপাড়া গ্রামের ওই কিশোরীকে রবিবার রাতে প্রথম দফা ধর্ষণ করে একই এলাকার এক সন্তানের জনক জেলে সোহেল গাজী। ধর্ষিতা ওই কিশোরী বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য দুলাল সিকদার’র কাছে অভিযোগ দেয়।

এ ঘটনায় ক্ষুদ্ধ হয়ে পরদিন সোমবার (১৩ মে) গভীর রাতে ওই কিশোরীকে একা পেয়ে সোহেল গাজী পুনরায় ধর্ষণ করতে গেলে স্থানীয়রা তাকে ধরে ফেলে।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল ইসলাম বলেন, আটককৃত সোহেল গাজী কিশোরীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।