শ্যামনগরে উন্নত চুলার উন্নয়ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ উদ্বোধন

“রান্নঘর হবে শান্তির জায়গা ” এ শ্লোগানকে সামনে নিয়ে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ছফিরুন্নেছা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে জনস্বাস্থ্য প্রকেীশল অধিদপ্তর, ইউনিসেফ ও প্রাকটিক্যাল এ্যাকশন বাংলাদেশের সহায়তায় পল্লীচেতনার বাস্তবায়নে উন্নতচুলা উৎপাদন,বিক্রয়,বিতরণ ও সরবরাহ ব্যবস্থা বিক্রয়য়োত্তর সেবা, বাজার ব্যবস্থা, ব্যবসায়িক পরিকল্পনা ও উন্নয়ন সম্পর্কিত তিন দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়।

স্থানীয় ১০ জন স্যানিটারী ব্যবসায়ী ও ১০টি স্কুলের ২০ জন উন্নত চুলার চেঞ্জ এজেন্টদের অংশগ্রহণে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন অনুষ্টানের প্রধান অতিথি ইউনিসেফ খুলানার ফিল্ড অফিসের চিফ মোঃ কফিল উদ্দিন।

পল্লীচেতনার পরিচালক আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইউনিসেফ খুলনার ওয়াশ অফিসার মোঃ নাহিদ মাহমুদ,প্রাকটিক্যাল এ্যাকশনের প্রকল্প পরিচালক মোঃ সাঈদউরহিম মাহাদি,মোঃ ফয়সাল তারেক, রেশমা পারভীন প্রমুখ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য আব্দুল হাকিম, গৃহিনী কনিকা রানী, সাংবাদিক রনজিৎ বর্মন, পল্লী চেতনার কর্মকর্তা তারিক আজিজ প্রমুখ।

প্রশিক্ষণে জানানো হয় উপজেলার মুন্সিগঞ্জ, আটুলিয়া ও বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের ১২টি গ্রামের দরিদ্রদের মধ্যে স্বল্প মূল্যে ৮হাজার উন্নত চুলা ১০জন প্রশিক্ষিত ব্যবসায়ীর মাধ্যমে বিতরণ, বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদান করা হবে এবং একটি মডেল গ্রাম তৈরী করা হবে। এ ছাড়া অনুষ্টানে বক্তারা উন্নত চুলা ও সনাতনী চুলার পার্থক্য তুলে ধরে মাল্টিমিডিয়া ভিত্তিক বক্তব্য প্রদান করেন।

রনজিৎ বর্মন, শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি