লিভ-ইন এর পর অভিনেত্রীকে ধর্ষণ করে ফেঁসে গেলেন চিকিৎসক

ঘনিষ্ঠতা, লিভ-ইন, তারপরই ধর্ষণ। এক চিকিৎসককে বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনলেন তরুণী। পেশায় অভিনেত্রী এবং মডেল ওই তরুণী। এই ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বইয়ে। এই ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়েছে তুমুল সমালোচনা। সবাই ওই ধর্ষক নীতিহিন চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আবেদন জানিয়েছেন।

জানা গেছে, ওই ২১ বছর বয়সী মডেল ও অভিনেত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণের পর সেই ভিডিওচিত্র ধারণ করেছে ৫২ বছরের এক চিকিৎসক। সেই ভিডিও দিয়ে তিনি প্রতিনিয়ত ব্ল্যাকমেইল করতেন অভিনেত্রীকে।

শেষে বাধ্য হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই অভিনেত্রী। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতারও করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, একটি হিন্দি ধারাবাহিকের সূত্রে চিকিৎসকের সঙ্গে মুম্বাইয়ে পরিচয় হয়েছিল ওই মডেলের। সেখান থেকেই প্রেম। পরবর্তীতে এক সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নেন তারা। লিভ ইন করতেন দু’জনে।

ভারতীয় গণমাধ্যম থেকে জানা যায়, ওই মডেল-অভিনেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতেই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা হয়। পরে চিকিৎসককে তার বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয়।

মডেলের অভিযোগ, বন্ধুত্ব ছিল তাদের। সেই বন্ধুত্বের সূত্র ধরেই পরে এক সঙ্গে থাকতে শুরু করেন তারা। অভিনেত্রীর অভিযোগ, তাকে ধর্ষণ করে ওই চিকিৎসক এবং আপত্তিকর ছবিও তুলে রাখেন। এই ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তাকে বারবার ধর্ষণ করেছে ওই চিকিৎসক।