ফ্যানের পাখা দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে স্ত্রীকে মেরে ফেললেন স্বামী

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় স্বামীর বেধড়ক পিটুনিতে লাকি বেগম (২৮) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার গভীর রাতে উপজেলার উত্তর আমড়াগাছিয়া (সাতঘর) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। ঘাতক স্বামী ঘটনার পরপরই এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন। পারিবারিক কলহের কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে পুলিশ জানায়।

শরণখোলা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) শেখ মহিজুর রহমান বলেন, উপজেলার উত্তর আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হক চৌকিদারের ছেলে মো. নুরুল আমিন চৌকিদারের সঙ্গে সাত বছর আগে একই উপজেলার ছোট নলবুনিয়া এলাকার খলিলুর রহমানের মেয়ে লাকির বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে জিহাদ (৫) ও জেরিন নামের দেড় বছরের দুটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে নুরুল কোনো কাজ না করে শ্বশুরবাড়ি থেকে যৌতুক আনার জন্য লাকির ওপর নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করে।

এ নিয়ে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে কলহের সৃষ্টি হয়। বুধবার গভীর রাতে উভয়ের মধ্যে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে লাকিকে মারপিট শুরু করে নুরুল। এ সময় ঘরে থাকা সিলিং ফ্যানের পাখা দিয়ে পিটিয়ে লাকিকে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায় নুরুল। বৃহস্পতিবার সকালে লাকির পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে তাকে মৃত দেখতে পায়।

এ ঘটনায় শরণখোলা থানায় নুরুল আমিনকে আসামি করে হত্যা মামলা হয়েছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে ঘাতক স্বামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।