মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে শুকরিয়াঃ প্রধানমন্ত্রী

ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় ফণীর বিপদ কেটে যাওয়া এবং মানুষের জানমালের তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি না হওয়ায় মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে শুকরিয়া আদায় করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। লন্ডন সফররত প্রধানমন্ত্রী কর্মব্যস্ত সময়ের মধ্যেও ঘূর্ণিঝড়ের সার্বিক পরিস্থিতি এবং তা মোকাবেলায় করণীয় বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখেন। শনিবার (৪ মে) দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় ফণী দুর্বল হয়ে শনিবার সকালে বাংলাদেশ সীমানায় প্রবেশ করে। সর্বশক্তিমান মহান আল্লাহর অশেষ কৃপায় ঘূর্ণিঝড়টি স্থলপথে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যশোর-সাতক্ষীরা অঞ্চল হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়। যার ফলে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এখন পর্যন্ত বড় ধরনের কোনো ক্ষয়-ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। এ জন্য লন্ডন সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে শুকরিয়া আদায় করেছেন।

এর আগে ঘূর্ণিঝড় ফনি বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানার সম্ভাবনার পরিপ্রেক্ষিতে নির্দেশনা দিয়েছেন লন্ডনে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ বিষয়ে তিনি সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন।

ঘূর্ণিঝড় ফনির বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ ও সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার আগেই মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে আসার নির্দেশ দিয়েছেন। সরকারের সব সংস্থা এবং বেসরকারি সংগঠনগুলোকে সুসমন্বিতভাবে ঘূর্ণিঝড় ফনি মোকাবেলায় কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

তার নির্দেশনা মোতাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে সারাদেশে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবেলায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সরকারের রয়েছে বলে জানানো হয়।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী, কোস্টগার্ডসহ সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরও দুর্যোগ মোকাবেলায় সব প্রস্তুতি রয়েছে।

এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় ফনির সম্ভাব্য আঘাতের পরিপ্রেক্ষিতে দেশবাসীকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।