পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়ে ধর্ষণ থেকে বাঁচলেন গৃহবধূ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টায় বাবু মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের ফাঁসিতলা বাজারের চায়ের দোকানদার বাবু মিয়াকে এক গৃহবধু সুদে টাকা ধার দেন। এই টাকা লেন-দেনের মাধ্যমে বাবুর সঙ্গে গৃহবধুর ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। এ সম্পর্কের সূত্র ধরে গত মঙ্গলবার রাতে কৌশলে ওই গৃহবধুর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন বাবু। এ সময় নিজের সম্ভ্রম রক্ষার জন্য ধারালো অস্ত্র দিয়ে বাবু মিয়ার পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেন গৃহবধূ।

এ সময় বাবু মিয়ার চিৎকারে আশ পাশের লোকজন ছুঁটে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া ঠেঙ্গামারা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে এখনও তার জ্ঞান ফেরেনি বলে জানা গেছে।

এদিকে এ ঘটনার পর নিরাপত্তার কারণে গাঢাকা দিয়েছেন ওই গৃহবধূ। এ ঘটনায় ফাঁসিতলা এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে।

বাবু মিয়ার মেয়ে অভিযোগ করে বলেন, ‘ওই মহিলা খুবই খারাপ। অঙ্গহানি করে কাজটা ঠিক করেনি। বাবা সুস্থ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

গোবিন্দগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদ জানান, এ ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।