মজা খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

নরসিংদীর পলাশ উপজেলার জিনারদী ইউনিয়নের কুড়াইতলী গ্রামে মজা খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ঘরে নিয়ে গিয়ে ৬বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পলাশ থানার অফিসার ইনচার্জ এর তত্বাবধানে ঘটনাস্থল থেকে নরঘাতক প্রান্ত দাস (২০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

গতকাল মঙ্গলবার(৩০ এপ্রিল) রাতে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার জিনারদী ইউনিয়নের কুড়াইতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আটককৃত প্রান্ত দাস ওই ইউনিয়নের কুড়াইতলী গ্রামের মৃত নিরাশ দাসের ছেলে।

থানা পুলিশ ও ওই শিশুটির পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে বাড়ির পাশেই খেলা করছিল শিশুটি।
এ সময় প্রতিবেশি মৃত নিরাশ দাসের ছেলে প্রান্ত দাস শিশুটিকে মজা খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে তার ঘরে নিয়ে গিয়ে দরজা আটকিয়ে রেখে অমানুষিক নির্যাতন চালায় জানায় শিশুটির পরিবার।

এদিকে নরঘাতক আসামীর আত্মীয় শীতল দাস বলেন, বাচ্চাটি বাইরে খেলনা নিয়ে খেলতেছিল। হঠাৎই বাচ্চাটাকে হাতের ইশারা দিয়ে ঘরে ডেকে নেওয়ার একাধিক চেষ্টা করে সে। কিন্তু বাচ্চাটি ডাকে সাড়া না দেওয়ায় পাশের দোকান থেকে মজা কিনে নিয়ে বাচ্চাটিকে লোভ দেখিয়ে ঘরে নিয়ে যায়।

বাচ্চাটি প্রায় দীর্ঘ আধা ঘন্টা পর থেকে বেরিয়ে আসলে চিৎকার করতে থাকলে লোকজন জড়ো হতে থাকে। পরে শিশুটির মা শিশুটিকে জিজ্ঞেস করলে শিশুটি ঘটনাটি মাকে জানান। পরে ভুক্তভোগি ওই শিশুটির পরিবার স্থানীয় ইউপি সদস্যকে বিষয়টি অবগত করলে ইউপি সদস্য এলাকার লোকজন নিয়ে অভিযুক্ত প্রান্ত দাসকে আটক করে থানা পুলিশকে খবর দেয়।

এই বিষয়ে পলাশ থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম মোস্তফা ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত প্রান্ত দাসকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি ওই শিশুটির মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে পলাশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।