‘ঘিরে রাখা বাড়িটির ভেতরে বিস্ফোরণে অন্তত একজন নিহত’

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বছিলায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা বাড়িটির ভেতরে বিস্ফোরণে অন্তত একজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার মুখপাত্র কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান। 

তিনি বলেন, এখন সুইপিং চলছে। বোম ডিসপোজাল ইউনিট সুইপিং করছে।

তিনি বলেন, রাত ৩টা থেকে পৌনে ৫টা পর্যন্ত অপেক্ষা করা হয়। হ্যান্ড মাইকেও কথা বলার চেষ্টা করা হয়েছে। ওখানে একাধিক জঙ্গি থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভোর ৫টার দিকে বড় বিস্ফোরণ হয়েছে। এরপর আর কোনো আওয়াজ সাড়া শব্দ মেলেনি। আশপাশের বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হয়ছে।

এর পর সকাল ৯টার দিকে ঘিরে রাখা বাড়িটিতে প্রবেশ করতে দেখা যায় ব্যাবের কমান্ডো ও বোম দিস্পোজাল ইউনিটের সদস্যদের। র‍্যাব সদস্যরা এ সময় আস্তানা লক্ষ্য করে গুলি ছুড়েন।

এদিকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা বাডির কেয়ারটেকারসহ তিনজনকে আটক করেছে র‍্যাব। তারা হলেন- কেয়ারটেকার সোহাগ, সোহাগের বউ মৌসুমী ও স্থানীয় মসজিদের ইমাম ইউসুফ।

র‍্যাব-২ এর এসপি পদমর্যাদার এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, টিনশেড বাড়িটির কেয়ারটেকারকে জিজ্ঞাসাবাদে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে ওই টিনশেড ভবনে কারা কারা থাকেন। কীভাবে ভাড়া দিয়েছেন। সোহাগ ওই এলাকায় ডিশের ব্যবসা করেন।

তিনি বলেন, টিনশেড বাড়িটির পাশে একটি মসজিদ রয়েছে। সম্প্রতি মসজিদটি সম্প্রসারণ করে মাদরাসা করার কথাও চলছিল। মসজিদের ইমাম ইউসুফকেও তাই জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

র‍্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (এসপি) মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, আশঙ্কা করা হচ্ছে সম্প্রতি যে দুই যুবক ভাড়ায় ওই বাসায় উঠেছেন তারাই জঙ্গি আস্তানা গেড়েছে। তাদের ব্যাপারে তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা চলছে।