সাজার বিরুদ্ধে বেগম জিয়ার আপিল গ্রহণের বিষয়ে শুনানি আগামী মঙ্গলবার

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৭ বছরের সাজার রায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার করা আপিল গ্রহণের বিষয়ে শুনানি হবে মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল)। বুধবার (২৪ এপ্রিল) খালেদার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন আপিলটি গ্রহণে শুনানির জন্য তারিখ চাইলে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুছ জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ শুনানির দিন ধার্য করে।

আবেদনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, অ্যাডভোকেট ফারুক হোসেন ও ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান।

খালেদার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, আপিলটি অ্যাডমিশন হেয়ারিংয়ের (আপিল গ্রহণের বিষয়ে শুনানির) জন্য গিয়েছিলাম। আদালত আগামী মঙ্গলবার শুনানির দিন ধার্য করেছেন। এটা আগামী মঙ্গলবার অ্যাডমিশন হেয়ারিং হবে।

আপিলের গ্রহণের শুনানির সাথে জামিন আবেদনের শুনানিরও বিধান আছে। জামিন আবেদন করা আছে। আমরা আশা করছি ওইদিন অ্যাডমিশন আবেদনের সাথে বেইল আবেদনেরও হিয়ারিং হবে।

জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি হাতে পাওয়ার চার দিন পর গত বছর ১৮ নভেম্বর হাই কোর্টে আপিল করেন বেগম খালেদা জিয়া। ৬৩৮ পৃষ্ঠার মূল রায়সহ প্রায় ৭০০ পৃষ্ঠার এই আপিলের সঙ্গে হাই কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জামিন আবেদনও করেন খালেদার আইনজীবীরা।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ অক্টোবর ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আখতারুজ্জামান এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। মামলার বাকি সব আসামিকে একই সাজা দেয়া হয়। এবং ট্রাস্টের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের ঘোষনা করেন আদালত। আর মামলার অন্যতম আসামি হারিছ চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেয়া হয়।