গির্জার দেয়ালজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে মাংসখণ্ডঃ ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে

পুরো দেয়ালজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে মাংসখণ্ড, এমন কি ছিটকে গিয়ে পড়েছে গির্জার বাইরেও। মেঝেতে পড়ে আছে ভাঙা কাচের টুকরো ও ধ্বংসাবশেষ। খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় উৎসব ইস্টার সানডে উদযাপনকালে আজ রোববার সকালে কয়েকটি গির্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলার পর এমন দৃশ্যের বর্ণনা দেন কলম্বোর আর্কিডোসিসের সামাজিক যোগাযোগ পরিচালক ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে।

সকালে গির্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলায় ১৮০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছে অন্তত ৫ শতাধিক মানুষ। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

বোমা হামলা চালানোর টার্গেটে সেন্ট সেবাস্তিয়ানস গির্জা ছিলো বলেও যুক্তরাষ্ট্রের বার্তা সংস্থা সিএনএন-কে জানান ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে।

তিনি বলেন, ইস্টার সানডে উপলক্ষে শ্রীলঙ্কার সেন্ট সেবাস্তিয়ানস গির্জায় সমবেত হয়েছিলেন এক হাজারেরও বেশি মানুষ। অনেকে এসেছিলেন গ্রাম থেকে। সমাবেত জনতার হয়ে প্রার্থনায় মগ্ন ছিলেন তিনজন ধর্মযাজক। ঠিক তখনই ঘটে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা।

বিস্ফোরণে ছিটকে আসা কাচের টুকরো এবং ধ্বাংসাবশেষে গুরুতর আহত হন দুই যাজক। অন্য আরেকজন সমান্য আহত হন, কারণ তিনি ছিলেন বেদির পিছনে।

ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে বলেন, বিস্ফোরণে মুহূর্তের মধ্যে গির্জাটি ভেঙে তচনচ হয়ে যায়। মেঝেতে ভাঙা কাচের টুকরোতে ভরে যায়। মানুষে মাংসের টুকরোগুলো এদিকে ওদিক ছড়িয়ে পড়ে। যেটুকরোগুলো এখনও দেয়ালে লেগে আছে।