ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি আগুন নেভাতে এগিয়ে এসেছে সাধারণ মানুষ

রাজধানীর গুলশান-১ এর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মার্কেটে আগুন লাগার ঘটনায় ২৯১টি দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। আজ শনিবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। আরো স্বস্তির খবর হলো আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট কাজ করেছে। তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে সেনা, বিমান ও নৌবাহিনীর সদস্যরা। পাশাপাশি সাধারণ মানুষও আগুন নেভাতে এগিয়ে এসেছে।

অগ্নিকাণ্ডে প্রাথমিকভাবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তবে আগুন চারদিকে ছড়িয়ে না যায় সেজন্য ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আগুন নেভাতে চেষ্টা চালিয়েছেন এসব সাধারণ মানুষ। তারা মগ ও বালতিতে করে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালিয়েছেন।

স্কাউট ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবীরাও আগুন নেভানোর জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। সময় যতো গড়াচ্ছিলো আগুণের লেলিহান ছড়িয়ে পরছিল। চারিদিকে কালো ধোঁয়াও ছেয়ে গেছে। ডিএনসিসি মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের উপ পরিচালক (ডিডি) দেবাশীষ বর্ধন।

কীভাবে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তবে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের ধারণা, কাঁচাবাজারের সুগন্ধীর কোনো দোকান থেকে আগুনে লেগেছে।

এর আগে ২০১৭ সালের ৩ জানুয়ারি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়েছিল গুলশান ১ নম্বর ডিএনসিসি মার্কেট। তখন দোতলা মূল বিপণি বিতানের পাশের কাঁচাবাজারও সম্পূর্ণ পুড়ে গিয়েছিল। তারপর ওই বাজারটি নতুন করে গড়ে তোলার দুই বছরের মধ্যে আবার তা পুড়ে গেল। ২০১৭ সালে আগুনের ঘটনার পর পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়নি মার্কেট কর্তৃপক্ষ। এমন অভিযোগ করেন আশপাশের লোকজন।