প্রায় ৭০ বছর পর চালু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে ক্রুজ শিপ

প্রায় ৭০ বছর পর আগামীকাল ২৯ মার্চ বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে পুনরায় ক্রুজ শিপ চালু হতে যাচ্ছে। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সংবাদে এ কথা জানা যায়।

কোস্টাল ও প্রটোকল রুটে প্যাসেঞ্জার ও ক্রুজ সার্ভিস পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পাদিত সমঝোতা স্মারকের আলোকে ২৯ মার্চ সন্ধা ৭টায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) ক্রুজ শিপ ‘এমভি মধুমতি’ ঢাকা হতে কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা করবে। একই দিনে ভারতের ক্রুজ শিপ ‘মেসার্স আর ভি. বেঙ্গল গঙ্গা’ কলকাতা থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবে।

ক্রুজ শিপ যাত্রার ঐতিহাসিক মুহুর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে ২৯ মার্চ বিকাল ৫ টায় ঢাকার সন্নিকটে নারায়ণগঞ্জের পাগলাস্থ ভিআইপি ঘাটে (মেরিএন্ডারসন) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবং বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

জাহাজটি ২৯ মার্চ রওনা দিয়ে বরিশাল-মোংলা-সুন্দরবন-খুলনার আন্টিহারা-ভারতের হলদিয়া রুট হয়ে ৩১ মার্চ আনুমানিক দুপুর ১২ টায় কলকাতায় পৌঁছবে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১৬ নভেম্বর বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে কোস্টাল এবং প্রটোকল রুটে প্যাসেঞ্জার ও ক্রুজ সার্ভিস চালুর জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়।

২০১৮ সালের ২৫ অক্টোবর এ বিষয়ে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটর  প্রসিডিউর (এসওপি) স্বাক্ষর হয়।