বিদ্যালয়ের পরিবেশ দূষণ করে চলছে ঠিকাদারের রাস্তা সংস্কারের কাজ!

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে চলছে ঠিকাদারি কার্যক্রম। উপজেলার ফকিরগঞ্জ বাজার থেকে তাড়িয়া সড়কের শিঙ্গিয়া ব্রীজ হতে তাড়িয়া বাজার পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার রাস্তার সংস্কার কাজের টেণ্ডার দেয় স্থানীয় এলজিইডি বিভাগ। ওই কাজের দায়িত্ব পায় ঠাকুরগাঁও এর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জলিল ইন্টারন্যাশনাল।

সম্প্রতি রাস্তা সংস্কারের জন্য প্রায় দুই মাস পূর্বে রাস্তার পূর্বের কার্পেটিং তুলে পথচারীদের যাতায়াতে মারাত্মক সমস্যার সৃষ্টি করে। দীর্ঘ দিন নানান টালবাহানায় রাস্তার কাজ বন্ধ রাখার পর সংস্কারের কাজের জন্য বালু, পাথর ও বিটুমিন তৈরির সামগ্রী নিতুপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে রাখা হয়।

অতি সম্প্রতি রাস্তায় পিচ ঢালাই কাজ শুরু করে ওই প্রতিষ্ঠানটি। ওই বিদ্যালয়ের অভিভাবকদের মৌখিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল সামবার (২৫ মার্চ) দুপুরে বিদ্যালয় মাঠে গেলে দখা যায় মাঠে মশিন বসিেয় বালু ও পাথরের সাথে বিটুমিন মিশ্রণ করে রাস্তা সংস্কারের কাজ চলছে। এতে মেশিনের বিকট শব্দে ও বিটুমিনের কটু গন্ধে গোটা এলাকা দুষিত হয়ে ওঠে। ফলে শিক্ষার্থী সহ সংশ্লিষ্টদের বিদ্যালয়ে অবস্থান করা দুষ্কর হয়ে উঠলে তড়িঘড়ি নিতুপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় দুপুরেই ছুটি দিয়ে দেয়। এদিকে নিতুপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তপক্ষ কামলমতি শিশু শিক্ষার্থীদের নিয়ে পড়েছে বেকায়দায়।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ দবিরুল ইসলােমর সাথে কথা বললে তিনি জানান, রাস্তা সংস্কারের জন্য মাঠে চুলা বানিয়ে বিটুমিন পুড়ানো হচ্ছে। আর এ কারণে বিদ্যালয়ের ভিতর মেশিনের শব্দ ও ধুলার জন্য শিশু শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে থাকতে পারছে না। তাই টিফিনের পর স্কুল ছুটি দিয়েছি। সমস্যার কথা তুলে ধরে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে জানিয়েছি, তিনি বিষয়টি দখতে চেয়েছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ তাবারক হুসেন এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, ছুটি দওয়ার বিষয়টি আমি জানি না। প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলে দেখবো কি সমস্যা।

উপজেলা প্রকৌশলো মোঃ মালেক মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি জানান, ঠিকাদার কোথায় মালামাল তৈরি করবে তা আমি বলতে পারব না। তবে বিদ্যালয়ের মাঠা ব্যবহার করা ঠিক হয়নি। কাল ধোঁয়ার কারণে স্কুল ছুটি দেয়ার ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আঃ লতিফ এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, আমি বিষয়টি জানি না। যেহেতু এখন জানতে পারলাম বিষয়টি আমি এখনি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করছি।

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি