মন্ত্রীর গাড়িতে বলাকা বাসের ধাক্কা, চালক ও সহকারীকে গ্রেফতার

সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেননের গাড়িতে ধাক্কা দিয়েছে বলাকা পরিবহনের একটি বাস। তবে শুক্রবার মহাখালীর এ ঘটনায় অক্ষত রয়েছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেনন। ওই বাসের চালক আমানুল্লাহ ও তার সহকারী দুলাল মোল্লাকে আসামি করে মামলা করেছেন মেননের গাড়িচালক মো. মজনু মিয়া। 

পুলিশ জানিয়েছে, আটক চালক ও সহকারীকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

মেনন বলেন, ব্যক্তিগত গাড়িতে সকালে বিমানবন্দরের দিকে যাচ্ছিলাম। মহাখালী উড়াল সেতুসংলগ্ন সড়কের ওপর বলাকা পরিবহনের বাসটি থেমে যাত্রী উঠাচ্ছিল। পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আমাদের গাড়িটিকে ধাক্কা দিয়ে চলে যায়। কিছু দূর যাওয়ার পর বাসটি থামান আমার দেহরক্ষী। এ সময় কর্তব্যরত ট্রাফিক কর্মকর্তা এসে যাচাই করে দেখেন, বাসের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। চালকের কোনো লাইসেন্স নেই। বাসটির ফিটনেস সনদও নেই। পরে চালক ও তার সহকারীসহ বাসটিকে বনানী থানায় নেয়া হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

ওয়ার্কার্স পার্টির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গাড়িতে মেনন ও তার গানম্যান ছাড়াও একজন ছিলেন।

মহাখালীতে কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট এএম মনসুর আল হাদী বলেন, ফ্লাইওভারের নিচে আমাদের চেকপোস্ট চলছিল। এমন সময় হঠাৎ দৌড়ে এসে এক পুলিশ সদস্য জানালেন দুর্ঘটনার কথা। সামনে গিয়ে দেখি মেনন স্যারের গাড়ি। ওই চালককে আটক রেখে বনানী থানায় খবর দেই। সার্জেন্ট হাদী জানান, প্রাথমিকভাবে ওই চালকের কাছে গাড়ির কাগজপত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স আমরা দেখতে চেয়েও পাইনি।

বনানী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) বোরহান উদ্দিন জানান, খবর পাওয়ার পরই এসআই মোখলেছুর রহমানকে পাঠানো হয়। তিনি ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় বাস ও চালককে আটক করে থানায় নেন। এসআই মোখলেছুর রহমান জানান, ওই বাসটির বিরুদ্ধে আগেও মোবাইল কোর্টে মামলা হয়েছে। মেলেনি চালকের লাইসেন্সও। ওই চালকের বিরুদ্ধেও মামলা হওয়ায় তার লাইসেন্স জব্দ রয়েছে।