যেভাবে ধরা হয় নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলাকারীকে ব্রেনটনকে

নিউজিল্যান্ডের আল নূর মসজিদে ব্রেনটন ট্যারান্ট হামলা চালিয়ে ৫০ জন মুসলমানকে হত্যা করে। হামলাকারীকে অনেকটা নাটকীয়ভাবে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন দেশটির দুই পুলিশ কর্মকর্তা। যে দুই পুলিশ সদস্য তাকে গ্রেফতার করেছে তার বক্তব্য উঠে এসেছে গণমাধ্যমে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই পুলিশ সদস্যের বরাত দিয়ে নিউজিল্যান্ডের গণমাধ্যম এনজেটহের‌্যাল্ডে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, প্রথমে তিনি খবর পান একজন বন্দুকধারী শহরে অবস্থান নিয়েছে। এই খবরে ঘটনাস্থলে যান তিনি।

ব্রেনটনকে গ্রেফতার করা আরেকজন হলেন পুলিশের সিনিয়র সার্জেন্ট পিট স্টিল। তিনি জানান, তারা ক্যাশমির প্রিন্সেস মার্গারেট হাসপাতালে একটি প্রশিক্ষণে ছিলেন। সেখানেই প্রথম আক্রমণের খবরটি পান এবং ঘটনাস্থলে যান।

পিট জানান, ওই হামলাকরীর গাড়িতে আরও অস্ত্র ছিল। তার নিশ্চয়ই আরও হামলার পরিকল্পনা ছিল তার।

এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ঘটনাস্থলে রাস্তার এক পাশে একটি গাড়ি রাখা ছিল। সেই গাড়িতেই ছিল হামলাকারী। সেটিতেপুলিশের গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দেওয়া হয়। পুলিশের গাড়ির ধাক্কায় সেটির সামনে চাকা শূন্যে উঠে যায়। এর পেছনেই পুলিশের আরও কয়েকটি গাড়ি ছিল।

পিট আরও জানান, এ সময় তারা ব্রেনটনের দিকে তাক করে অস্ত্র উঁচিয়ে আছেন। এক পর্যায়ে ওই হামলাকারী মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় পুলিশের আরেক সদস্য তাকে গ্রেফতার করেন।

এমন সাহসিকতাপূর্ণ কাজের জন্য নিউজিল্যান্ডের পুলিশ কমিশনার মাইক বুশও ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার প্রশসংসা করেছেন।