পাকিস্তানী জনগণের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন ব্রেনটন টেরেন্ট!

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে বর্বরোচিত হামলাকারী ব্রেনটন টেরেন্ট সম্পর্কে নতুন তথ্য পেয়েছে নিউজিল্যান্ড পুলিশ। গত বছর ব্রেনটন টেরেন্ট পাকিস্তান সফরে গিয়েছিলেন বলে তারা জানিয়েছে। পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলের একটি শহরের ওশু থাং নামে একটি হোটেলে অবস্থান করেছিলেন তিনি। সেই হোটেলের মালিক সৈয়দ ইসরার হোসেন ব্রেনটন টেরেন্টের ছবি দেখে তাকে চিনতে পারেন।

২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে ব্রেনটন তার হোটেলে অবস্থান করেছিলেন বলে দাবি করেন সৈয়দ ইসরার হোসেন। তবে এ পর্যটকই যে বর্ণবাদবিদ্বেষী ও মসজিদে প্রার্থনারত ৫০ নিরপরাধ মুসলমানকে হত্যা করেছে, সেটি ভাবতেই পারছেন না সৈয়দ ইসরার হোসেন।

যে কয়দিন ব্রেনটন পাকিস্তানে ছিলেন, তার মধ্যে মুসলমান বা ইসলাম সম্পর্কে কোনো বিদ্বেষ দেখতে পাননি তিনি। বরং পাক জনগণের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন এই ব্যক্তি, জানান সৈয়দ ইসরার হোসেন।

বিবিসিকে তিনি বলেন, আমার এখানে এই অভিযুক্ত হামলাকারী একাই এসেছিলেন। দুই রাত হোটেলে অবস্থান করেছিলেন তিনি। এ সময় ব্রেনটন পায়ে হেঁটে এলাকার বিভিন্ন প্রান্ত ঘুরে বেড়ান এবং অন্যান্য পর্যটকের চেয়েও বেশি ছবি তোলেন। ওই সময় টুইটারে পাকিস্তানিদের আতিথেয়তার প্রশংসা করে ব্রেনটন টেরেন্ট একটি পোস্ট করেন।

যেখানে তিনি লিখেছিলেন- পাকিস্তান এক চমৎকার স্থান। বিশ্বের সবচেয়ে দয়াবান ও অতিথিপরায়ণ মানুষে পরিপূর্ণ একটি দেশ। সৌন্দর্যের দিক দিয়ে পাকিস্তানের উপত্যকার শরৎকালীন দৃশ্য কোনো অংশেই হার মানার নয়।

পর্যটকরা যেন পাকিস্তানের মতো এমন চিত্তাকর্ষক দেশে বেশি ভ্রমণ করতে পারেন, সে জন্য তিনি পাকিস্তান সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন ওই টুইট পোস্টে।