প্রতি স্কুলে থাকবে একজন প্রধানমন্ত্রী ও ৭ জন মন্ত্রী

ছোটবেলা থেকে শিক্ষার্থীদের মধ্যে গণতন্ত্র চর্চাকে উৎসাহিত করতে সারা দেশের সব মাধ্যমিক স্তরের স্কুল-মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হলো স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট প্রয়োগ করেছে শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯ টায় শুরু হয়ে ভোট চলে দুপুর ২টা পর্যন্ত। ১ বছর মেয়াদী এই কেবিনেটে থাকবে ৮ জন প্রতিনিধি। যার মধ্যে থেকে একজনকে প্রধানমন্ত্রী ও ৭ জনকে মন্ত্রীর ভূমিকায় মনোনীত করা হবে।

গাজীপুরে একটি বিদ্যালয়ে নির্বাচন পরিদর্শনে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপুমনি বলেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের মাধ্যমে সব শিশু গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ নিয়ে বেড়ে উঠবে, দায়িত্বশীল হবে, নিজেদের কাজ নিজেরা করতে শিখবে। সবাই মিলে কীভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হয়, সেটি শিখবে।

এদিকে, রাজধানীর উত্তরখানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, এই নির্বাচনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা নেতৃত্বের গুণাবলী অর্জন করবে।

এসময় তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনিয়ম বন্ধে অভিযান চালান। এতে অনুপস্থিত থাকার দায়ে দুই শিক্ষককে বরখাস্তসহ একজন শিক্ষা অফিসারকে শোকজ করেন প্রতিমন্ত্রী। বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে যোগ্য করে গড়তে প্রাথমিক শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই।