সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু

আজ (বুধবার) সকাল ৯টায় সুপ্রিম কোর্ট বারের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির (২০১৯-২০ সালের) দুই দিনব্যাপী নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। প্রতি বছর সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৭টি সম্পাদকীয় ও ৭টি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে।

এবারের নির্বাচনে পূর্ণাঙ্গ প্যানেল ঘোষণা করেছে সরকার সমর্থিত সাদা প্যানেল এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত নীল প্যানেল। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে দু’জন এবং সদস্য পদের জন্য একজনসহ মোট ৩৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সভাপতি পদে সমিতির সাবেক সম্পাদক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন (এ এম আমিন উদ্দিন) ও সম্পাদক পদে বাংলাদেশ আইন সমিতির সাবেক সম্পাদক আইনজীবী আবদুন নুর দুলালের নেতৃত্বে সাদা প্যানেল থেকে ১৪ জনের পূর্ণাঙ্গ প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

অপরদিকে বারের সাবেক সভাপতি ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী এবং সম্পাদক পদে টানা ছয়বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহাবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে নীল প্যানেলে ১৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সুপ্রিম কোর্ট বারের সুপারেনটেনডেন্ট (তত্ত্বাবধায়ক) নিমেষ চন্দ্র দাস জানান, এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এ ওয়াই মশিউজ্জামান। তার নেতৃত্বে একটি সাব-কমিটি দায়িত্ব পালন করছে। ইতোমধ্যেই ভোটগ্রহণের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমার দিন ধার্য ছিল। মনোনয়ন প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শেষে এখন চূড়ান্তভাবে ৩৩ জন প্রার্থী রয়েছেন। আজ (১৩ মার্চ) এবং আগামীকাল (১৪ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে মাঝে ১ ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। এরপর গণনা শেষে ফল ঘোষণা করা হবে।

এবার হারানো ইমেজ পুনরুদ্ধার করতে আপ্রাণ চেষ্টা করছে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ও তাদের মিত্ররা। অপরদিকে বিএনপি-জামায়াতের প্রার্থীরা নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে মরিয়া।

এদিকে ভোটের আগেরদিন মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সকালে আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগে কার্যক্রম শুরুর আগে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের প্রার্থী এবং তাদের সমর্থক আইনজীবীরা দলবেঁধে প্রচার-প্রচারণা চালান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here