নূরকে বুকে জড়িয়ে ধরে অভিনন্দন জানিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি

মঙ্গলবার বিকেল ৪টার পর শোভনের নেতৃত্বে ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপিকে অভিনন্দন জানাতে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র-টিএসসির অডিটোরিয়ামে যায় ছাত্রলীগ প্রতিনিধি দল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নবনির্বাচিত সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নূরকে বুকে জড়িয়ে ধরে অভিনন্দন জানিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি ও ভিপি পদে পরাজিত প্রার্থী রেজওয়ানুল হক শোভন।

এ সময় তার সঙ্গে কোলাকুলি করেন নির্বাচনে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়া ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

এ সময় নুর সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশা অনুযায়ী একটি আদর্শ ক্যাম্পাস গড়ে তুলতে পরস্পরের সহযোগিতা প্রয়োজন। শোভন ভাই বলেছেন, সহযোগিতা করবেন।

পুনর্নির্বাচনের দাবির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচনে বস্তাভর্তি ব্যালট পাওয়াসহ বেশকিছু অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে। ২৮ বছর নির্বাচন হয়েছে। আমরা যে নির্বাচন আশা করেছি, সেটা হয়নি। যেহেতু অনেক প্যানেল নির্বাচন করেছে। তাই আমি চাইব- বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করবে।

এ সময় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে নবনির্বাচিত ভিপি বলেন, আমি দুপুরে নির্বাচিত ভিপি হিসেবে ক্যাম্পাসে আসলে আমার ওপর হামলা হয়। ছাত্রলীগ হামলা করে। যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রক্টর এবং ছাত্রলীগ সভাপতি বিষয়টি দেখার আশ্বাস দিয়েছেন, আমি হামলার ঘটনায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি প্রত্যাহার করলাম।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে বিক্ষোভরত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে রেজওয়ানুল হক শোভন বলেন, ‘মানুষকে দূরে ঠেলে দিয়ে লাভ নাই। কারণ, আমাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদেরকে নিয়ে চলতে হবে। সবাই তো আমাদের। কে আপন, কে পর? সবাই তো আপন। তুমি যদি মানুষকে পর করে দাও তাহলে তো হবে না। তোমাকে মনে রাখতে হবে তুমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মী। ছাত্রলীগ কর্মীদের মন ছোট হতে পারে না। ছাত্রলীগ কর্মীদের মন অনেক বড় হতে হয়।’

ওই বক্তব্য দেওয়ার পর শোভন যান টিএসসি চত্বরে। সেখানে আগে থেকেই অবস্থান করছিলেন নূর ও বিরোধী বিভিন্ন জোটের নেতাকর্মীরা। টিএসসিতে পৌঁছেই নূরকে পেয়ে বুকে জড়িয়ে ধরেন শোভন।