ঢাকা দায়রা ও জেলা জজ আদালতের লিফট ছিঁড়ে ১২ জন আহত

ঢাকা মহানগর দায়রা ও জেলা জজ আদালতের লিফট ছিঁড়ে ১২ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে আদালতের উত্তর পাশের একটি ছয়তলা ভবনের পাঁচতলা থেকে লিফট ছিঁড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে পুরুষ ও নারী আইনজীবী, কোর্টের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিচার প্রার্থীরা ছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা গুরুতর।

ফায়ার সদর দফতরের টেলিফোন অপারেটর জিয়াউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, পুরান ঢাকার জজকোর্টের পাঁচতলা ভবনের একটি লিফট উপর থেকে নিচে ছিঁড়ে পড়ে। খবর পেয়ে সেখানে তিনটি ইউনিট পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কয়েকজন আহত আছেন বলে আমরা জানাতে পেরেছি।

ডিএমপির কোতোয়ালি থানার ওসি মশিউর রহমান বলেন, মহানগর দায়রা জজকোর্টের পাঁচতলা ভবনের একটি লিফট উপর থেকে নিচে ছিঁড়ে পড়ে যায়। এতে ১২জন আহত হয়। আহতরা স্থানীয় ন্যাশনাল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে আহতদের ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে দুইজনকে পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া।

তিনি বলেন, ‘আহতদের মধ্যে জাহাঙ্গীর আলম সুমন (৪৭), অ্যাডভোকেট মিঠু, পেশকার সুমন (২৪), কাওসার (৩৫), অ্যাডভোকেট সোহাগ (৩৬), অ্যাডভোকেট আমিন (৩৫), অ্যাডভোকেট আইয়ুব আলী (৫৮), আসামি সুমন (২৯), অ্যাডভোকেট সুলতান আহমেদ (৩৮) ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে অ্যাডভোকেট শামসুন নাহার ও তার সঙ্গে থাকা অন্য একজন নারীকে ঢামেকে নিয়ে আসার পর পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়।’

ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউট হাসপাতালে আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়এদিকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে লিফটের দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান ও ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি খতিয়ে দেখেছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আদালতের স্টাফ ভেন্ডার নূরুল আমিন জানান, লিফটের ধারণ ক্ষমতা ৮ জনের। তবে ধারণ ক্ষমতার বাইরে লোক উঠায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।